Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

রাত ১:১৪ ঢাকা, বুধবার  ২১শে নভেম্বর ২০১৮ ইং

গাজীপুরে টেক্সটাইল কারখানার আগুন নিয়ন্ত্রণে : ৫ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন

গাজীপুরের শ্রীপুরে ডিগনিটি টেক্সটাইল মিলের ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের প্রায় ১৪ ঘণ্টা পর আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে।
সোমবার ভোররাত ৪টার দিকে সাততলা ভবনের উপরের স্টিলের তৈরি তিনটি তলা পুড়ে যায়। ধসে পড়ে গোটা তিনটি তলা।।
আজ সকাল পর্যন্ত কারখানার বিভিন্ন অংশে ধোঁয়া ওঠছিল। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা কাজ করছেন।
এদিকে, আগুনের ঘটনা তদন্তে পাঁচ সদস্যের একটি কমিটি করা হয়েছে। কমিটিকে পাঁচ কর্মদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়েছে।
গাজীপুরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট মোহাম্মদ হোসেন জানান, সন্ধ্যায় জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে শ্রীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ সাদেকুর রহমানকে প্রধান করে ৫ সদস্যের কমিটি করা হয়েছে। কমিটির অন্যরা হলেন, শ্রীপুর থানার এসআই মো. জাহিদুল ইসলাম, গাজীপুর ফায়ার সার্ভিসের একজন কর্মকর্তা, বিজিএমইএর একজন প্রতিনিধি ও কল-কারখানা পরিদর্শক।
ফায়ার সার্ভিস সূত্র জানায়, রোববার বেলা ২টার দিকে জেলার শ্রীপুরের বেতজুরী এলাকায় ডিগনিটি টেক্সটাইল মিলস লিমিটেডের কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। কারখানার সাত তলা ভবনের তিন তলার গুদাম ঘর থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। ফায়ার সার্ভিসের ১৮টি ইউনিট আগুন নেভানোর কাজ করেছে। খবর পেয়ে ঢাকা,সাভার ইপিজেডসহ টঙ্গী, শ্রীপুর ও জয়দেবপুর এবং ময়মনসিংহের ভালুকা ফায়ার সার্ভিসের ১৮টি ইউনিট আগুন নেভানোর চেষ্টা করে।
কারখানার প্রশাসনিক ব্যবস্থাপক নাজমুন্নাহার কেমু জানান, ঘটনার সময় তৃতীয় তলায় মধ্যাহ্ন বিরতি চলছিল। এ সময় তৃতীয়তলার গুদামঘরের দক্ষিণ পাশের জানালা দিয়ে ধোঁয়া বের হতে দেখে আগুন লাগার খবর নিশ্চিত হওয়া যায়। মুহূর্তের মধ্যে আগুন তৃতীয় তলার পুরো অংশে ছড়িয়ে পড়ে। আগুনে তৃতীয় তলার গার্মেন্টসসহ সব সরঞ্জমাদি পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এ কারখানায় প্রায় ৩ হাজার শ্রমিক কাজ করে। কারখানায় বিভিন্ন ধাপে সুতা থেকে ‘টি শার্ট’ তৈরি করা হয়।
পোশাক শ্রমিক হাসিবুল বলেন, দুপুর সোয়া ২টার দিকে স্টিলের কাঠামোর উপর নির্মিত বিশাল আকৃতির সাততলা কারখানা ভবনের তৃতীয় তলার গুদামে আগুনের সূত্রপাত হয়। মুহূর্তেই আগুন ভবনের পঞ্চমতলা পর্যন্ত ছড়িয়ে পড়ে। কারখানা ভবনে পর্যাপ্ত দরজা-জানালা না থাকায় ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ভবনের ভেতরে পানি সরবরাহ করার কাজটি সহজে করতে পারেনি।