ব্রেকিং নিউজ

বিকাল ৩:২৯ ঢাকা, সোমবার  ২৩শে অক্টোবর ২০১৭ ইং

মো. আবদুল হামিদ
রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ

গলাকাটা বাদ দিয়ে রোগী বান্ধব চিকিৎসক হোন

গলাকাটা বাদ দিয়ে রোগী বান্ধব চিকিৎসক হতে আহ্বান জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। তিনি বলেন, এক শ্রেণীর চিকিৎসক ও সংশ্লিষ্ট অন্যান্যরা চিকিৎসার নামে রাতারাতি অনেক টাকা বানাতে রোগীদের সঙ্গে প্রতারণা করে থাকে।

 রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ

‘প্রেসিডেন্ট আবদুল হামিদ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল’ এর শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

আজ রাষ্ট্রপতির সঙ্গে কিশোরগঞ্জে স্থানীয় সমবায় কেন্দ্রে প্রেসিডেন্ট আবদুল হামিদ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের (পিএইচএমসিএইচ) শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা সাক্ষাত করতে গেলে তিনি বলেন, ‘এক শ্রেণীর চিকিৎসক ও সংশ্লিষ্ট অন্যান্য ব্যক্তিরা চিকিৎসার নামে লোকদের সঙ্গে নিয়মিত প্রতারণা করে… এটা আসলেই একটা অত্যন্ত লজ্জাজনক কাজ।’

রাষ্ট্রপতি চিকিৎসা পেশাকে একটা মহান পেশা হিসেবে অভিহিত করে বলেন, এই পেশার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিরা টাকা আয় করতে এবং একই সঙ্গে সাধারণ লোকদের সেবা দিয়ে সহায়তা করতে পারেন।

তবে তিনি চিকিৎসকদের প্রতি ধনী হওয়ার প্রবণতা ত্যাগ এবং রোগীদের যথাযথ চিকিৎসা নিশ্চিত করার আহ্বান জানান।

আবদুল হামিদ শিক্ষার্থীরা যাতে সময়োপযোগী জ্ঞান অর্জন করতে পারে তার জন্য আধুনিক ও বিশ্বমানের চিকিৎসা শিক্ষা নিশ্চিত করার প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

রাষ্ট্রপতি চিকিৎসকদের পরামর্শ দিয়ে বলেন, ‘ভাল ব্যবহার করুন এবং রোগী বান্ধব চিকিৎসক হোন… গলাকাটা ব্যবসা পরিহার করুন। বিশ্ব প্রতিযোগিতায় টিকে থাকার জন্য আন্তরিকভাবে পড়াশোনা করুন।

রাষ্ট্রপতি বলেন, যেহেতু এই মেডিকেল কলেজটি আমার নামে হয়েছে অতএব ‘অনুগ্রহ করে আমার ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করার চেষ্টা করুন… আমার মৃত্যুর পরও যেন এটা বিনষ্ট না হয়।’

কলেজের প্রিন্সিপাল এএনএম নওশেদ খান রাষ্ট্রপতিকে পিএএইচএমসিএইচ-এর সার্বিক কার্যক্রম সম্পর্কে অবহিত করেন।

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

কিশোরগঞ্জে জেলা আইনজীবী সমিতির সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

পরে রাষ্ট্রপতি কিশোরগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে জেলা আইনজীবী সমিতির সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় মিলিত হন এবং কিশোরগঞ্জ গুরুদয়াল কলেজও পরিদর্শন করেন। এখানে তিনি ষাটের দশকের শেষ দিকে অধ্যায়ন করেন।