ব্রেকিং নিউজ

রাত ১:০৭ ঢাকা, বুধবার  ১২ই ডিসেম্বর ২০১৮ ইং

গণমাধ্যম কর্মীদের নিরাপত্তায় আইন সংশোধনেও প্রস্তত:তথ্যমন্ত্রী

তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, গণমাধ্যম কর্মীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সরকার প্রয়োজনে আইন সংশোধন করবে। মন্ত্রী বলেন, গণমাধ্যম গণতন্ত্রের অতন্দ্র প্রহরী। তারা খাপ খোলা তলোয়ার। তারা সরকার ও রাজনীতিকদের সমালোচনা করবেন কিন্তু তা যেন সত্য নির্ভর হয়। সাংবাদিকরা তাদের অভিজ্ঞতা ও দক্ষতা দিয়ে সত্য প্রকাশের কারণে যদি তাদের নিরাপত্তা বিঘ্নিত হয় সরকার সে দায়িত্ব নেবে। প্রয়োজনে আইন সংশোধন করবে। নতুন আইন করতেও সরকার প্রস্তত।

তিনি আজ ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি আয়োজিত ‘তথ্য অধিকার আইন ২০০৯’ শীর্ষক কর্মশালার সমাপনী অধিবেশনে প্রধান অতিথির ভাষনে এ কথা বলেন। সাগর-নুরী মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত সভায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি শাহেদ চৌধুরী সভাপতিত্ব করেন। প্রধান তথ্য কমিশনার মোহাম্মদ ফারুক, তথ্য কমিশনার নেপাল চন্দ্র সরকার, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মনজুরুল আহসান বুলবুল এবং ডিআরইউ’র প্রশিক্ষণ ও গবেষণা সম্পাদক মো: সাজ্জাদ হোসেন বক্তব্য রাখেন। তথ্য মন্ত্রণালয় এবং তথ্য কমিশনের সহায়তায় ডিআরইউ এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

হাসানুল হক ইনু বলেন, কোন আইনের মাধ্যমে সাংবাদিকদের হয়রানি করা হচ্ছে এমনটি মনে হলে আপনারা সুনির্দিষ্ট সংশোধনীর সুপারিশ নিয়ে আসুন। তথ্য মন্ত্রণালয় সেটি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে পেশ করবে। কারণ প্রধানমন্ত্রী আপনার মতামত ও সমালোচনাকে গ্রহণ করেন। তিনি তথ্য প্রযুক্তি আইনের অপব্যবহার হচ্ছে এমন সমালোচনার জবাবে তিনি সাংবাদিকদেরকে এই আইনের সংশোধনীর জন্য সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব পেশ করার আহ্বান জানান।
তথ্যমন্ত্রী ইতিহাস বিকৃতি, মিথ্যাচার ও অপপ্রচার রোধে গণমাধ্যমের কর্মীদেরকে দায়িত্বশীল ভ’মিকা পালনের আহ্বান জানান। তিনি বলেন, তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে যে পরিমাণ মিথ্যাচার করা হচ্ছে তা শীঘ্রই রোধ করতে হবে। এজন্য সাংবাদিকদের আরো সতর্ক হতে হবে। তিনি গণআন্দোলনের নামে সহিংস রাজনীতিকারীদের চিহ্নিত করার জন্য গণমাধ্যম কর্মীদের প্রতি আহ্বান জানান।

মাহাম্মদ ফারুক তথ্য অধিকার আইন সম্পর্কে জনসচেতনতা সৃষ্টিতে গণমাধ্যমের কর্মীদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, ডিআরইউ আয়োজিত এই দীর্ঘমেয়াদী প্রশিক্ষণ কর্মশালার ফলে সাংবাদিকদের মধ্যে এই আইন সম্পর্কে সচেতনতা যেমন বেড়েছে তেমনি এ সংক্রান্ত রিপোর্টিংও বেড়েছে।

Like & share করে অন্যকে দেখার সুযোগ দিন

শীর্ষ মিডিয়া