শীর্ষ মিডিয়া

ব্রেকিং নিউজ

রাত ১১:৫৮ ঢাকা, শুক্রবার  ১৪ই ডিসেম্বর ২০১৮ ইং

ওবায়দুল কাদের।
আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, ফাঈল ফটো

‘গণমাধ্যমে প্রকাশিত মনোনয়ন তালিকা ত্রুটিপূর্ণ’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, তফসিল অনুযায়ী মনোনয়ন বাছাইয়ের পরে সার্বিক অবস্থা বিবেচনা করে জোটের মনোনয়নের তালিকা আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ করা হবে।

কৌশলগত কারণে জোটের মনোনয়নে তালিকা প্রকাশের সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করা হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, প্রতিপক্ষের যে কৌশল সেটাও তো দেখতে হবে। কৌশলে কারো থেকে পিছিয়ে থাকতে চাই না। কারণ নির্বাচনী কৌশল জয়ের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।’

দলীয়ভাবে মনোনয়নের যে তালিকা করা হয়েছে সেটা গণমাধ্যমে দেয়ার জন্য তৈরি করা হয়নি এবং এতে অনেকের নাম গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে যাদের নাম তালিকায় নেই বলেও জানান কাদের।

তিনি বলেন, ‘মনোনয়নের চিঠি দিয়ে প্রার্থীদের নির্বাচন কমিশন(ইসি) তে মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার সুযোগ করে দিয়েছি। কিন্তু অনেকের নাম গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে যাদের নাম তালিকায় নেই।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, মনোনয়নের তালিকা অফিশিয়ালী প্রকাশ করার আগে লোকের মুখে শোনা কথার ভিত্তিতে গণমাধ্যমে কারো নাম প্রকাশিত হলে প্রার্থীর জন্য যেমন বিব্রতকর, তেমনি দলের জন্যও বিব্রতকর।

তিনি আজ বিকেলে রাজধানীর ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন। আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আজ আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোটের প্রার্থী তালিকা আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ করার কথা ছিল।

এ সময় আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ এমপি, দপ্তর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, বিজ্ঞাণ ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আব্দুস সবুর, শিক্ষা ও মানব সম্পাদ বিষয়ক সম্পাদক শামসুন নাহার চাঁপা, উপ-দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়–য়াসহ কেন্দ্রীয় কমিটির অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

কাদের বলেন, আওয়ামী লীগ, ১৪ দল, জাতীয় পার্টি ও যুক্তফ্রন্টের প্রার্থীদের নাম আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করা হবে। সেজন্য জোটের শরীকদের প্রার্থীদেরও মনোনয়নের চিঠি দিয়ে ইসিতে মনোনয়ন জমা দেয়ার সুযোগ করে দেয়া হয়েছে।

আওয়ামী লীগের বেশ কিছু আসনে দু’জনকে দলীয় মনোনয়নের চিঠি দেয়ার বিষয়ে কাদের বলেন, যে সকল আসনে দু’জনকে দলীয় মনোনয়নের চিঠি দেয়া হয়েছে সে আসনে মনোনয়নের চিঠি দেয়ার পর আরো একটি জরিপ হচ্ছে। জরিপে যে প্রার্থী এগিয়ে থাকবে তাকে মনোনয়ন দেয়া হবে।

তিনি বলেন, যে সকল প্রার্থীদের দলীয় মনোনয়নের চিঠি দেয়া হয়েছে, তাদের মধ্যে কেউ ঋণখেলাপীও থাকতে পারে। সব বিষয় পরিষ্কার হওয়ার আগে আমরা পূর্ণ তালিকা প্রকাশ করতে চাই না। আর শরীকদের মধ্যে যাতে কোন ভুল বোঝাবুঝি না হয়, সে বিষয়টিও গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে।

২৩১ প্রার্থীকে দলীয় মনোনয়নের চিঠি দেয়া হয়েছে উল্লেখ করে সেতুমন্ত্রী কাদের বলেন, ২৮ নভেম্বরের মধ্যে মনোনয়ন পত্র বাছাই শেষ হবে। আর প্রার্থীতা প্রত্যাহারের আগেই জোটের মনোনয়নের চূড়ান্ত তালিকা আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ করা হবে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে কাদের বলেন, আওয়ামী লীগ একটি বড় রাজনৈতিক দল। দলীয় মনোনয়ন দেয়ার পর ক্ষোভ বিক্ষোভ থাকতেই পারে। তবে অন্যান্য বার ব্যাপকভাবে যেভাবে হয়, সেভাবে এবার হবে না। কারণ দলের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে গেলেই তার বিরুদ্ধে কঠিন ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, দলীয় মনোনয়নের চিঠির বাইরে আমরা কিছু করব না। তবে জোটের স্বার্থে আমাদের প্রার্থীর চেয়ে জোটের অধিকতর গ্রহণযোগ্য প্রার্থী হলে তাকে ছেড়ে দেয়া হবে।

দলীয় মনোনয়নের চিঠি যারা পেয়েছেন তারা ইসিতে মনোনয়নপত্র জমা দেবেন বলে উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, ঐক্যফ্রন্ট নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্র করছে। তারা বুঝতে পেরেছে নির্বাচনে তারা জিততে পারবে না। তাই ড. কামাল চমক দিয়ে সিইসির পরিবর্তন চাইলেন। নির্বাচনের এক মাস আগে যারা সিইসির পরিবর্তন চায় তারা নির্বাচনে আসতে কতটুকু আন্তরিক তা বোঝা যায় বলেও মন্তব্য করেন কাদের।