Press "Enter" to skip to content

গণপিটুনিতে মৃত্যু: সহিষ্ণুতা-সচেতনতা জরুরি : তথ্যমন্ত্রী

তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, গুজব, ছেলেধরা আতঙ্ক ও গণপিটুনিতে মৃত্যু রুখতে সহিষ্ণুতা আর শান্তির পক্ষে সচেতনতা প্রয়োজন।

ড. হাছান বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে রটিয়ে দেয়া পদ্মাসেতুতে বলিদানের গুজব আর সেই থেকে ছেলেধরা আতঙ্ক এবং অসহিষ্ণু মানুষের গণপিটুনিতে নির্দোষ প্রাণের মৃত্যু- এসব রুখতে প্রয়োজন সহিষ্ণুতা আর শান্তির পক্ষে সচেতনতা।

মানবিকতাবোধ আর শান্তি রক্ষার শপথে বলীয়ান থাকলেই কেবল অশান্তি-হানাহানি এড়ানো সম্ভব বলে মন্তব্য করেন তথ্যমন্ত্রী।

সোমবার সন্ধ্যায় রাজধানীর গণগ্রন্থাগারের শওকত ওসমান মিলনায়তনে ‘ফিল্মস ফর পিস ফাউন্ডেশন’ আয়োজিত দু’দিনব্যাপী ‘পিস ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল ২০১৯’ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘একটি ভালো চলচ্চিত্র সমাজে শান্তি বজায় রাখতে এবং মানবিকতার সুরক্ষায় অনবদ্য ভূমিকা রাখতে পারে।’

ড. হাছান বলেন, চলচ্চিত্র যুবসমাজকে মাদক, জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবাদ থেকে দুরে রাখে। একটি ভালো চলচ্চিত্র সমাজ, জাতি ও দেশ গঠনের পাশাপাশি মেধা ও মননের বিকাশে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

সংগঠনের পরিচালক রোকেয়া প্রাচীর সভাপতিত্বে মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের পরিচালক শাহীন আনাম, অধ্যাপক সি আর আবরার, চলচ্চিত্র নির্মাতা কাওসার আহমেদ চৌধুরী এবং সংগঠনের নির্বাহী পরিচালক পারভেজ সিদ্দিকী অনুষ্ঠানে শান্তির পক্ষে চলচ্চিত্রের ভূমিকা নিয়ে বক্তব্য রাখেন।

তথ্যমন্ত্রী নির্মাতারা বিনোদনের পাশাপাশি শিক্ষামূলক চলচ্চিত্র নর্মাণ করবেন বলে আশা প্রকাশ করেন।

শেয়ার অপশন: