ব্রেকিং নিউজ

দুপুর ১:৫৪ ঢাকা, বুধবার  ১৯শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

ফাইল ফটো

গণতান্ত্রিক সংস্কৃতি জনগণ যে কোন মূল্যে রক্ষা করবে

Like & Share করে অন্যকে জানার সুযোগ দিতে পারেন। দ্রুত সংবাদ পেতে sheershamedia.com এর Page এ Like দিয়ে অ্যাক্টিভ থাকতে পারেন।

 

আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য এবং স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, দেশে নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতা হস্তান্তরের যে গণতান্ত্রিক সংস্কৃতি চালু আছে তাকে জনগণ যে কোন মূল্যে রক্ষা করবে।
তিনি বলেন, অসাংবিধানিক পথে যারা ক্ষমতায় আসতে চায় তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম আজ শুক্রবার সকালে রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে ১৪ দলের বৈঠক শেষে একথা বলেন।
মোহাম্মদ নাসিম বলেন, বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া হতাশাগ্রস্ত হয়ে হরতাল ও অবরোধের নামে মানুষ হত্যা এবং ধ্বংসাত্মক কর্মকান্ডকে আন্দোলনের উপায় হিসেবে গ্রহণ করেছেন। তার হরতাল ও অবরোধ এখন প্রহসনে পরিণত হয়েছে।
নিজের হতাশা থেকে বেগম জিয়া মহান শহীদ দিবসে শহীদ মিনারে পর্যন্ত যাননি বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন, করুণ পরিণতির জন্য তাকে আরো কিছুদিন অপেক্ষা করতে হবে।
নাসিম বলেন, বেগম জিয়া পেট্রোলবোমার নেত্রী এবং প্রাণসংহারকারী নেত্রীতে পরিণত হয়েছেন।তারা এখন সেনাবহিনীকে প্রকাশ্যে উস্কানি দেয়ার চেষ্টা করছেন।
১৪ দলের পূর্বঘোষিত আগামী ৮, ৯ এবং ১০ মার্চের দেশব্যাপী পদযাত্রা কর্মসূচি সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘আমরা চারটি টিমে বিভক্ত হয়ে আগামী ৮ থেকে ১০ মার্চ পর্যন্ত সারাদেশের বিভিন্ন এলাকার পদযাত্রা ও সমাবেশ সফল করব।’
এ বিষয়ে তিনি বলেন, প্রথম টিমটি সিরাজগঞ্জ,বগুড়া, গাইবান্ধা; দ্বিতীয় টিমটি গাজীপুর মানিকগঞ্জ, মুন্সিগঞ্জ; তৃতীয়টি চট্টগ্রাম, নোয়াখালী, ফেনী এবং চতুর্থ টিমটি কুষ্টিয়া, ঝিনাইদহ এবং যশোরের কর্মসূচিগুলোতে অংশগ্রহণ করবে।
তিনি গতকাল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সফটওয়ার প্রকৌশলী উদীয়মান লেখক অভিজিত রায়কে নৃশংসভাবে কুপিয়ে হত্যা করার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান এবং তার খুনীদের দ্রুত গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি দেয়ার দাবী জানান।
এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ,আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য নূহ উল আলম লেনিন, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক বদিউজ্জামান ভুঁইয়া ডাবলু, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক ড. আব্দুর রাজ্জাক, দফতর সম্পাদক ড, আবদুস সোবহান গোলাপ, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য এনামুল হক শামীম, আমিনুল ইসলাম আমিন, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়–য়া, ওয়াকার্স পাটির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা, জাসদের সাধারণ সম্পাদক শরীফ নূরুল আম্বিয়া, গণতন্ত্রী পাটির সভাপতিমন্ডলীর সদস্য নূরর রহমান সেলিম, মাহমুদুর রহমানা বাবু, জাতীয় পার্টি (মঞ্জু) জেপির সাধারণ সম্পাদক শেখ শহিদুল ইসলাম, গণআজাদী লীগের এস কে শিকদার, কমিউনিস্ট কেন্দ্রের ডা. ওয়াজেদুল ইসলাম খান।
এর আগে দেশের সর্বশেষ পরিস্থিতি নিয়ে কেন্দ্রীয় ১৪ দলের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়–য়া এবং পরিচালনা করেন ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম।