ব্রেকিং নিউজ

সকাল ১১:৫১ ঢাকা, সোমবার  ২৪শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

ফাইল ফটো

খুনির সঙ্গে কীসের কথা: প্রধানমন্ত্রী

Like & Share করে অন্যকে জানার সুযোগ দিতে পারেন। দ্রুত সংবাদ পেতে sheershamedia.com এর Page এ  Like দিয়ে অ্যাক্টিভ থাকতে পারেন।

 

বিএনপি নেতৃত্বাধীন জোটের চলমান আন্দোলনকে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ আখ্যা দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, কার সঙ্গে আলোচনা। খুনির সঙ্গে কীসের কথা। যার মধ্যে কোনো দয়া-মায়া নেই, তাদের সঙ্গে আলোচনা হতে পারে না। জামায়াত-বিএনপি এরা জঙ্গি। এদের থামাতে সরকার যতটা কঠোর হওয়া প্রয়োজন ততটাই কঠোর হবে।

বুধবার সকালে পেট্রোল বোমার আগুনে দগ্ধ ব্যক্তিদের দেখতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে যান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বার্ন ইউনিট পরিদর্শন শেষে তিনি এসব কথা বলেন।
প্রধানমন্ত্রী দগ্ধ প্রত্যেককে ১০ লাখ টাকা করে আর্থিক সহযোগিতা দেন। বার্ন ইউনিটে বর্তমানে ৬৩ জন চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
খালেদা জিয়া যা করছেন তা রাজনীতি নয়, জঙ্গিবাদ উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, জঙ্গিদের যেভাবে বিচার হয়, বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার সেভাবেই বিচার হবে। সেভাবেই তাকে শাস্তি পেতে হবে।
এক প্রশ্নের জবাবে শেখ হাসিনা বলেন, কার সঙ্গে আলোচনা। খুনির সঙ্গে কীসের কথা। যার মধ্যে কোনো দয়া-মায়া নেই, তাদের সঙ্গে আলোচনা হতে পারে না। যারা সংলাপের উদ্যোগ নিয়েছে তাদের বলেন, খালেদা জিয়াকে মানুষ হত্যার খেলা আগে বন্ধ করতে।
এসময় সুশীল সমাজের সমালোচনা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, যারা তত্ত্বাবধায়কের সময় দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হয়ে পদত্যাগ করেছেন, তাদের কথা আমাকে শুনতে হবে? তারা শুধু আমাকে আলোচনায় বসতে বলেন। কিন্তু যারা রাতের আঁধারে মানুষ পুড়িয়ে মারে তাদের চোখে দেখেন না। তারা বিএনপিকে বলুক এ সহিংসতা বন্ধ করতে। আমি তো খালেদার বাসায় গিয়েছিলাম, কিন্তু আমাকে তিনি অপমান করেছেন। আমি কি আবারও যাবো!
শেখ হাসিনা সাংবাদিকদের উদ্দেশে বলেন, জামায়াত-বিএনপি জঙ্গি দল। আপনারা কেন তাদের নিউজ প্রচার করেন। তাদের নিউজ প্রচার না করলে কী টেলিভিশন চলবে না।
তিনি বলেন, আপনারা জল্লাদদের নিউজ কাভারেজ দেয়া বন্ধ করুন, দেখবেন তারা সহিংসতা কমিয়ে দিয়েছে।
শেখ হাসিনা বলেন, খালেদা জিয়ার মানসিক বিকৃতি হয়ে গেছে। তিনি মানুষ পুড়িয়ে উল্লাস করছেন।
দেশবাসীই এখন বিএনপি-জামায়াতকে প্রতিরোধ করছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এই বোমাবাজদের যারা ধরিয়ে দিতে পারবেন তাদের আমরা পুরষ্কৃত করবো।
শেখ হাসিনা বলেন, যারা বোমা বানায়, সরবরাহ করে, মারে এবং হুকুম দেয় তাদের কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না। তাদের বিচার হবে।