ব্রেকিং নিউজ

দুপুর ২:৪৪ ঢাকা, শুক্রবার  ২১শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

খালেদা-তারেক আইনের উর্ধ্বে নয়

Like & Share করে অন্যকে জানার সুযোগ দিতে পারেন। দ্রুত সংবাদ পেতে sheershamedia.com এর Page এ Like দিয়ে অ্যাক্টিভ থাকতে পারেন।

 

তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, গণতন্ত্রে কেউ রাজা-রাণী নয়, খালেদা-তারেকও আইনের উর্ধ্বে নয়। যারা খালেদা-তারেককে বিচারের বাইরে রাখতে রাখতে চায়, তারা আগুন-সন্ত্রাসী দানবদেরও রাজনীতিতে পুষতে চায়।’
হাসানুল হক ইনু আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর রামকৃষ্ণ মিশনে শ্রীরামকৃষ্ণ দেবের ১৮০তম জন্মতিথি ও বার্ষিক উৎসব উপলক্ষে আয়োজিত ’বিশ্বশান্তি প্রতিষ্ঠায় ধর্ম-সম্প্রীতি : শ্রীরামকৃষ্ণের ভূমিকা’ শীর্ষক আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় একথা বলেন।
রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশনের অধ্যক্ষ স্বামী ধ্রুবেশানন্দের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ধর্মগুরু ও পুরোহিতবৃন্দ অংশ নেন। এসময় শ্রীরামকৃষ্ণের শিষ্য স্বামী বিবেকানন্দের ১৫০তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে প্রকাশিত স্মরণিকা ‘উদ্দীপন’ এর মোড়ক উন্মোচন করেন তথ্যমন্ত্রী।
তথ্যমন্ত্রী বলেন, গণতন্ত্রে কোন অপরাধীর স্থান নেই। কারাগারই অপরাধীর স্থান। বরং অপরাধী কারাগারের বাইরে থাকলে গণতন্ত্র ধ্বংস হয়।
‘খালেদা জিয়া গ্রেপ্তার হলে গণতন্ত্র ক্ষতিগ্রস্ত হবে বলে যারা তারস্বরে চিৎকার করছেন, তারা খালেদা জিয়াকে রাজা-রাণী ভাবেন’ বলে মন্তব্য করেন তথ্যমন্ত্রী।
রামকৃষ্ণের জীবন-দর্শনের ওপর আলোকপাত করে হাসানুল হক ইনু বলেন, রামকৃষ্ণদেব শান্তির জন্য সকল মতবিভেদ ভুলে একসাথে কাজ করার যে কালজয়ী নজীর সৃষ্টি করেছেন, তা আমাদের সকলকে অনুপ্রাণিত করে।
তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘অন্যায়-অশান্তি-অপরাধ করলে বিচার হবে, জেল খাটতে হবে। খালেদা-তারেককে বিচারের বাইরে রাখার দিন শেষ। অপরাধীদের বিচারের বাইরে রাখার যে বাজে সংস্কৃতি সামরিক শাসকরা চালু করেছিল, তা থেকে শেখ হাসিনার গণতান্ত্রিক সরকার বেরিয়ে এসেছে। তিনি বলেন, আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা গণতন্ত্রের পূর্বশর্ত।