ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৮:১৫ ঢাকা, সোমবার  ২৪শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

খালেদা জিয়া ব্যক্তিগত কারণে আন্দোলনের নামে মানুষ খুন করছেন:প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বেগম খালেদা জিয়া কোন জাতীয় ইস্যুতে আন্দোলন করছেন না ব্যক্তিগত কারণে তিনি আন্দোলনের নামে মানুষ খুন করছেন। খুনীর বিচার যেভাবে হওয়া উচিত এক্ষেত্রেও সেই বিচারই হবে।
তিনি বলেন, ২০ দল বিষধর সাপ হয়ে দেশকে ধ্বংস করছে। মানুষের ওপর জুলুম-নির্যাতন ও অত্যাচার চালিয়ে যাচ্ছে। নিরীহ মানুষকে পুড়িয়ে মারা হচ্ছে। ঠিক একইভাবে ২০১৩ সালের নির্বাচন প্রতিহতের ঘোষণা দিয়ে ধ্বংসযজ্ঞ চালানো হয়েছিল।
শেখ হাসিনা বলেন, আন্দোলন আমরাও করেছি, আমাদের আন্দোলন ছিল জনগণকে সাথে নিয়ে তাদেরকে সম্পৃক্ত করে আন্দোলনের মাধ্যমে অধিকার আদায় করা। কিন্তু বিএনপি-জামায়াত জোট বাস পুড়িয়ে, রেললাইনের ফিস প্লেট উঠিয়ে মানুষ মারার চেষ্টা করা, ঘুমন্ত শ্রমিককে বাসের মধ্যে আগুনে পুড়িয়ে মারা, গর্ভবতী মাকে আগুনে দগ্ধ করে তার পেটের সন্তানকে হত্যা করা, শিক্ষয়িত্রীকে হত্যাসহ যতভাবে মানুষ হত্যা করা যায় বিএনপি-জামায়াত জোট তাই করে যাচ্ছে। এমনকি বিশ্ব ইজতেমা এবং ঈদে মিলাদুন্নবীর (সা.) দিনও তারা অবরোধ দিয়ে মানুষকে ধর্ম-কর্ম করতে দেয়নি।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, গত এক বছরে দেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করেছে। দেশ যখন অর্থনৈতিকভাবে এগিয়ে যাচ্ছে, তখনই বেগম খালেদা জিয়া ও তার জোট আন্দোলনের নামে নাশকতা চালিয়ে যাচ্ছে।
তিনি বলেন, বেগম খালেদা জিয়া একদিকে মানুষ হত্যা করছে অপরদিকে চরম মিথ্যাচার করে যাচ্ছেন। নিজেদের অপকর্ম সরকারের ওপর চাপানোর চেষ্টা করছেন। তাদের মিথ্যাচার এখন শুধু দেশেই নয়। আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ছড়িয়ে পড়েছে। এ প্রসঙ্গে তিনি ভারতের বিজেপি প্রধান অমিত শাহ’র টেলিফোন এবং ৬ কংগ্রেসম্যানের বিবৃতি নিয়ে বিএনপির মিথ্যাচারের কথা তুলে ধরেন।
শেখ হাসিনা বলেন, বিএনপি নির্বাচন না করে দেশকে অসাংবিধানিক পথে নেয়ার চেষ্টা করেছে। ৫ জানুয়ারি নির্বাচন প্রতিহত করার ঘোষণা দিয়েও ব্যর্থ হয়েছে। ওই নির্বাচনে ৪০ শতাংশ মানুষ ভোট দিয়েছে। এ ক্ষোভ থেকে বিএনপি নেত্রী আন্দোলনের নামে মানুষ হত্যা করছেন। মানুষের রক্ত নিয়ে তিনি কি অর্জন করতে চান। এ সময় তিনি বলেন, সময় হলে নির্বাচন হবে, সেজন্য প্রস্তুতি নেন। একটি দল নির্বাচনে যায়নি, এটি তাদের রাজনৈতিক ব্যর্থতা। এজন্য দেশের মানুষ ভুক্তভোগী হতে পারে না।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, তিনি নিজেকে নিজেই অবরুদ্ধ করে মিথ্যাচার করছেন যে, সরকার তাকে অবরুদ্ধ করে রেখেছে। অথচ তিনি আসবাবপত্রসহ সবকিছু গুছিয়ে সেখানে গিয়ে উঠেছেন। আর চোরাগোপ্তা হামলা করে মানুষ মারছেন।
যারা মানুষ হত্যার জন্য পেট্রোল ছুঁড়বে, যারা সন্ত্রাস করছে, তাদের বিরুদ্ধে পাড়া-মহল্লায় জঙ্গিবাদ বিরোধী কমিটি গঠন করে আইন-শৃংখলা বাহিনীকে সহযোগিতা করতে দেশবাসীর প্রতি শেখ হাসিনা আহ্বান জানান। এ প্রসঙ্গে তিনি সন্ত্রাসীকে ধরিয়ে দেয়ার জন্য পুরস্কারের কথা উল্লেখ করে পুরস্কারের পরিমাণ নির্ধারণ করে তা ঘোষণা দেয়ার জন্য স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর প্রতি নির্দেশ দেন।
তিনি বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বন্ধ করা, নিজেকে দুর্নীতি মামলা থেকে ও ২ পুত্রকে খুনের মামলা থেকে রক্ষার জন্যই বেগম খালেদা জিয়া পাকিস্তানী কায়দায় সারাদেশে গণহত্যা চালাচ্ছে। কিন্তু মানুষ হত্যা করে গণতন্ত্র হয় না।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা সাধারণ মানুষের জন্য রাজনীতি করি, মানুষকে রক্ষার জন্য যা যা করণীয় তাই করা হবে।