তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু
খালেদা জিয়া ও তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু

খালেদা জিয়া বিজিবি’কে ‘বিড়াল’ বলায় ক্ষমা চাইতে বললেন তথ্যমন্ত্রী

দেশের সীমান্তরক্ষার দায়িত্বে নিয়োজিত ‘বিজিবি’কে বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া ‘বিড়াল’ বলায় তাকে ক্ষমা চাইতে বলেছেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু।
বৃহস্পতিবার রাজধানীর একটি হোটেলে বিএনপি নেত্রী বিজিবিকে বিড়াল বলে আখ্যায়িত করার খবর পত্রিকায় প্রকাশের পর এক প্রতিক্রিয়ায় তথ্যমন্ত্রী আজ এ কথা বলেন।
মন্ত্রী তার নির্বাচনী এলাকা সফরের প্রাক্কালে আজ কুষ্টিয়া সার্কিট হাউজে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে বলেন, পুর্বের বিডিআর বা বর্তমানের বিজিবি আগেও কখনো বিড়াল ছিল না, এখনো নয়। তারা বাঘের মতোই ৭১ থেকে আজ অবধি সাহস ও দক্ষতার সাথে অতন্দ্র প্রহরীর ভূমিকা পালন করছে।’
শেখ হাসিনার আমলে বিজিবি আরো সুসজ্জিত ও সুপ্রশিক্ষিত হয়েছে উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘সেই বিজিবিকে ‘বিড়াল’ বলা খালেদা জিয়ার কান্ডজ্ঞানহীন, বালখিল্য ও বিদ্বেষপূর্ণ বিষোদগার এতে বিজিবি’র ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হয়েছে। এজন্য খালেদা জিয়াকে ক্ষমা চাইতে হবে।’
তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘মিথ্যাচার খালেদা জিয়ার পুরনো ফ্যাশন। ইদানীং তিনি মিথ্যাচারের পাশাপাশি রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান, সশস্ত্র বাহিনী, পুলিশ, বিজিবি, র‌্যাব সম্পর্কে অপমানজনক উক্তি করছেন, যা রাষ্ট্রীয় ব্যবস্থাকে অস্বীকার করার শামিল এবং রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে উস্কানি ছড়ানোর ষড়যন্ত্র।’
এসময় সাবধানবাণী উচ্চারণ করে হাসানুল হক ইনু বলেন, ‘জংগি-রাজাকারকে সংগী করে খালেদা জিয়া আগেই গণতন্ত্রের জন্য বিপজ্জনক হয়েছেন। আর রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানের ওপর বিদ্বেষপূর্ণ উক্তি করে তিনি এখন রাষ্ট্রযন্ত্রের জন্যও হুমকিস্বরূপ। তার বিষয়ে জনগণকে সজাগ ও সচেতন থাকতে হবে।’
এদিন সন্ধ্যায় তথ্যমন্ত্রী কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার বারুইপাড়া ইউনিয়নে গণ-ইফতার মাহফিলে যোগ দেন ।