ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৬:৪৯ ঢাকা, শুক্রবার  ২১শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

খালেদা ও তারেককে ক্ষমা চাইতে হবে

বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানকে তাদের বিরূপ মন্তব্যের জন্য জাতির কাছে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ।
তিনি বলেন, খালেদা জিয়াও তার ছেলের কথার সুরে সুর মিলিয়ে কথা বলছেন। এজন্য জাতির কাছে বিএনপি চেয়ারপার্সনকে ক্ষমা চাইতে হবে।
হাছান মাহমুদ আজ শুক্রবার আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা’র ধানমন্ডি রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ আহবান জানান।
বৃহস্পতিবার রাজধানীতে দলীয় এক কনভেনশনে বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া মিথ্যাচার করায় তার জবাব দিতে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।
হাছান মাহমুদ বলেন, আমরা ভেবেছিলাম খালেদা জিয়া তার পুত্রের অশোভন বক্তব্যের জন্য জাতির কাছে ক্ষমা চাইবেন। কিন্তু জাতিকে অবাক করে দিয়ে তিনিও পুত্রের সঙ্গে সুর মিলিয়ে নিজের অসংযত জিহ্বা দিয়ে একই বক্তব্য দিয়েছেন। আসলে ডিসেম্বর মাস এলেই খালেদা জিয়া বেসামাল হয়ে পড়েন। অসংলগ্ন ভাষায় কথা বলেন।
আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক বলেন, বেগম খালেদা জিয়াকে অনুরোধ জানাবো- দয়া করে নিজের এবং পুত্রের মুখটা সামলান । দেশের মানুষের উপর পেট্রোলবোমা নিক্ষেপ ও নৃশংস হামলা পরিচালনার হিংস্র হায়েনার মতো মানসিকতা পরিহার করুন। তাতে দেশের মানুষ স্বস্তি পাবে। অন্যথায়, দেশের মানুষের রোষানলের আগুনে আপনি এবং আপনার পুত্র দুজনই দগ্ধ হবেন।
তিনি বলেন, খালেদা জিয়া বৃহষ্পতিবার আদালতের বিচারক এবং বিচারপতিদের সম্পর্কে কটাক্ষ করে যে বক্তব্য রেখেছেন- তা চরমভাবে আদালত অবমাননার সামিল। প্রকৃতপক্ষে বেগম খালেদা জিয়া দেশের আইন আদালত- কোন কিছুরই তোয়াক্কা করেন না। তাই তিনি দেশের ইতিহাসে আদালতের সমন তামিল না করার রেকর্ড সৃষ্টি করেছেন। আদালত অবমাননাকর বক্তব্যের জন্য আদালতে স্বপ্রণোদিত হয়ে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করবে বলেও তিনি প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন।