শীর্ষ মিডিয়া

ব্রেকিং নিউজ

দুপুর ২:৩৪ ঢাকা, রবিবার  ১৬ই ডিসেম্বর ২০১৮ ইং

‘খালেদার মিথ্যাচারে ফেরেশতারাও উদ্বিগ্ন না হয়ে পারবেন না’ : তথ্যমন্ত্রী

তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, ‘খালেদা জিয়ার মিথ্যাচারে ফেরেশতারাও উদ্বিগ্ন না হয়ে পারবেন না।’ খালেদা জিয়া পুলিশের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে নিজেকে আগুন সন্ত্রাসের অভিযোগ থেকে আড়াল করতে চান।
তিনি বলেন, ‘রোজার দিনে ইফতারের আগেও তিনি মিথ্যাচার করেন। তার হাতে মিথ্যাচার ছাড়া আর কোনো রাজনৈতিক কৌশল বা হাতিয়ার নেই। তিনি মিথ্যাচারকে শিল্প বানিয়েছেন।’
তথ্যমন্ত্রী মঙ্গলবার সচিবালয়ে তথ্য অধিদপ্তরের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন। এতে আরও উপস্থিত ছিলেন প্রধান তথ্য কর্মকর্তা তছির আহাম্মদ এবং সিনিয়র উপ-প্রধান তথ্য কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাহফুজুর রহমান।
তিনি বলেন, খালেদা জিয়া ধোয়া তুলশি পাতা নন, তিনি একজন ঠান্ডা মাথার খুনি। তাই যতই মিথ্যাচার করুক না কেন, মানুষ পুড়িয়ে হত্যার বিচার হবেই।
সম্প্রতি পুলিশের বিরুদ্ধে ‘আগুন সন্ত্রাসের’ অভিযোগ আনায় খালেদা জিয়ার কঠোর সমালোচনা করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘খালেদা জিয়ার মিথ্যাচারে ফেরেশতারাও উদ্বিগ্ন না হয়ে পারবেন না।’
তিনি বলেন, ‘বেগম জিয়া ওয়ানওয়ে টিকেট কেটে রিটার্ন টিকেট হাতে না নিয়েই সন্ত্রাসবাদী রাজনীতির চরম গন্তব্যে পৌঁছে গিয়েছিলেন। জনগণ তাকে প্রত্যাখান করলেও তিনি এখনো তওবা পড়েননি’।
মধ্যবর্তী নির্বাচন নিয়ে মিডিয়ায় আলোচনার বিষয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আগুন সন্ত্রাসী খালেদা জিয়াকে রক্ষায় জন্য বিভিন্ন ধরনের আলোচনা রাজনৈতিক অঙ্গনে আনার চেষ্টা করা হচ্ছে।’
ইনু বলেন, ‘সংবাদ মাধ্যম তথ্য দিয়ে প্রতিবেদন করবে এটাই প্রত্যাশিত। কিন্তু, কেউ যদি কল্পনার রং লাগিয়ে প্রতিবেদন তৈরি করেন সেটা তাদের বিষয়।’
‘যুদ্ধাপরাধী এবং ’৭৫ এর খুনীদের আড়াল করতেও নানা চেষ্টা তদবির এবং অপরাজনীতি হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, আগুন সন্ত্রাসীদের বিষয়েও একই চেষ্টা চলছে। দুরভিসন্ধিকারীরা যতই চক্রান্ত করার চেষ্টা করুক তাকে বাঁচাতে পারবেন না।’
সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রী গত জানুয়ারি থেকে দেশব্যাপী যানবাহনে অগ্নিসংযোগের ঘটনা এবং এর একটি পরিসংখ্যান লিখিত বক্তব্য আকারে তুলে ধরেন।
এতে উল্লেখ করা হয়, ‘আগুনযুদ্ধে শিশুসহ ১৫৩ জন নিহত হয়েছে। এক হাজার যানবাহনে আগুন দেওয়া এবং তিন হাজারে ভাঙচুর করা হয়েছে। ৩৮৮টি ঘটনা পুলিশ রেকর্ড করেছে। ঘটনাস্থল থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে ৫৭৯ জনকে। এদের মধ্যে ৩৬৫ জন বিএনপির এবং জামায়াতের ২০৫ জন’।

 

 

http://www.bssnews.net/bangla/newsDetails.php?cat=6&id=296173&date=2015-07-07