ব্রেকিং নিউজ

বিকাল ৫:৩৩ ঢাকা, বুধবার  ১৯শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

‘খালেদার ঐক্যের ডাক এক ধরনের তামাশা’

জঙ্গি হামলা বন্ধে বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ঐক্যের ডাককে জাতির সঙ্গে এক ধরনের তামাশা বলে মন্তব্য করেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমদ।

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে রফতানি লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণী সভাশেষে সাংবাদিকদের কাছে তিনি এ মন্তব্য করেন।

বৈঠকে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব হেদায়েতউল্লাহ আল মামুন, বিজেএমইএ, বিকেএমইএ, এফবিসিসিআই’র প্রতিনিধিসহ রফতানি সংশ্লিষ্ট সরকারি বিভাগ ও অধিদফরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

তোফায়েল আহমদ বলেন, ‘বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া ২০ দলীয় জোটের সঙ্গে বৈঠক করে জাতীয় ঐক্যের আহ্বান জানিয়েছেন। সেখানে একটি রাজনৈতিক দল ছিল, যেটি আদালতের রায়ে সন্ত্রাসী ও স্বাধীনতাবিরোধীদের দল হিসেবে স্বীকৃত ও চিহ্নিত। ওই দলের নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করে সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে ঐক্যের আহ্বান জাতির সঙ্গে তামাশা ছাড়া আর কিছুই না।’

তিনি বলেন, ‘অনেকেই গুলশানসহ বিভিন্ন স্থানে মানুষ খুন করে দেশকে ব্যর্থ রাষ্ট্র বানানোর স্বপ্ন দেখছেন। এ দেশের মানুষ জঙ্গিগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ। তাদের ওই স্বপ্ন কোনো দিন পূরণ হবে না।’

মন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশ কখনও পরাজিত হবে না। জঙ্গিরাই পরাজিত হবে। একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের মতোই আমরা জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে বিজয়ী হব।’

জঙ্গি হামলাকে বৈশ্বিক সমস্যা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘এটা বাংলাদেশের একার সমস্যা নয়। জনগণকে সঙ্গে নিয়ে এ অপশক্তির মূলোৎপাটনে কাজ চলছে।’

এ সময় সন্ত্রাসী ও জঙ্গিগোষ্ঠীকে প্রতিরোধে সমাজের সব শ্রেণী-পেশার মানুষের সহযোগিতাও চান বাণিজ্যমন্ত্রী।

এ সময় গতবছরের রফতানি লক্ষ্যমাত্রার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘গত অর্থবছরে আমাদের রফতানির ক্ষেত্রে যে লক্ষ্যমাত্রা ছিল, তা শুধু পূরণই হয়নি, ৭শ’ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বেশি আয় করতে সক্ষম হয়েছি।’

মন্ত্রী জানান, আমাদের সামগ্রিক রফতানি বেড়েছে ১২৪ দশমিক ৮২ শতাংশ। তবে রফতানিকৃত তৈরি পোশাকের দাম সেভাবে বাড়েনি বলেও স্বীকার করেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, ‘রানা প্লাজা ধসের পর ক্রেতারা তৈরি পোশাকের দাম বাড়ায়নি। তারা যেভাবে ভিয়েতনাম ও চীনের পোশাকের দাম বাড়িয়েছে, সেভাবে আমাদের পোশাকের দাম বাড়ায়নি।’

চলতি অর্থবছরে রফতানি ৩৭ হাজার মিলিয়ন মার্কিন ডলার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

তোফায়েল আহমদ বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র আমাদের জিএসপি সুবিধা দিচ্ছে না। এ বছর সেটা নবায়ন করা হয়নি। তাতে আমাদের অর্থনীতিতে প্রভাব পড়েনি, আশা করি ভবিষ্যতেও কোনো প্রভাব পড়বে না।’