ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৯:১৯ ঢাকা, বুধবার  ২৪শে অক্টোবর ২০১৮ ইং

ড. হাছান মাহমুদ
ড. হাছান মাহমুদ, ফাইল ফটো

খালেদাকে অসুস্থ বানিয়ে রাজনৈতিক ফায়দা চায়

আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে অসুস্থ বানিয়ে তাঁর দলের নেতারা দেশের মানুষকে বিভ্রান্ত করে রাজনৈতিক ফায়দা হাসিল করতে চাচ্ছেন।

তিনি বলেন, ‘কারাগারে বেগম খালেদা জিয়া প্রথম শ্রেনীর কয়েদির চেয়েও বেশি সুযোগ-সুবিধা পাচ্ছেন।’

আওয়ামী লীগের অন্যতম মুখপাত্র ড. হাছান মাহমুদ আজ দুপুরে রাজধানীর ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের প্রচার ও প্রকাশনা উপ-কমিটির এক বৈঠক শেষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন।

এ সময় আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক শেখ আব্দুল্লাহ ও উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলামসহ উপ-কমিটির অন্য নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

বন ও পরিবেশ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ড. হাছান মাহমুদ বলেন, দেশে যদি গণতন্ত্র নাই থাকত তাহলে বিএনপির নেতারা সংবাদ সম্মেলনের নামে অশোভন ভাষায় বক্তব্য রাখতে পারত না। বিএনপির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক রিজভী আহমেদ সব সময় সুবিন্যস্ত অশোভন ভাষায় কথা বলেন, তা বলতে পারতেন না।

২০০৪ সালে বিএনপি ক্ষমতায় থাকার সময় সরকারি পৃষ্ঠপোষকতায় আওয়ামী লীগের সন্ত্রাস বিরোধী জনসভায় গ্রেনেড হামলা চালানো হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বিএনপি ক্ষমতায় থাকার সময় সব সময় বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ের আওয়ামী লীগ কার্যালয় কাঁটাতারের বেরিকেড দিয়ে রাখা হত। কিন্তু আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকার সময় বিএনপির অফিস কখনো কাটাতারের বেরিকেড দিয়ে রাখা হয় নি।

কোটা আন্দোলন নিয়ে রিজভী আহমেদের বক্তব্যের জবাবে সাবেক বন ও পরিবেশ মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, বিএনপির বক্তব্যের মাধ্যমেই প্রমাণ হয়, কোটা আন্দোলন ছিল রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত। যে কথাটি আওয়ামী লীগ কোটা আন্দোলনের শুরু থেকেই বলে আসছিল।

তিনি বলেন, কোটা আন্দোলনে বিএনপি এতদিন ভেতর থেকে সমর্থন করে আসছিল, আর এখন তারা প্রকাশ্যে সমর্থন করছেন। রিজভী আহমেদের বক্তব্যেই প্রমাণ হয়েছে এটি রাজনৈতিক উদ্দেশ্যমূলক আন্দোলন।