ব্রেকিং নিউজ

রাত ১১:১৩ ঢাকা, শুক্রবার  ২১শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

ফাইল ফটো

ক্ষমতা হারানোর ভয়ে সংলাপের বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছে সরকার

সরকার ক্ষমতা হারানোর ভয়ে সংলাপের বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।
আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফের বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় বুধবার বিকালে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন। এরআগে দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির সংলাপের প্রস্তাব প্রত্যাখান করে হানিফ বলেছিলেন, আন্দোলনের নামে আগুনে পুড়িয়ে মানুষ হত্যার জন্য জাতির কাছে ক্ষমা না চাওয়া পর্যন্ত খালেদা জিয়ার আলোচনার কথা বলা উচিত নয়। প্রতিক্রিয়ায় রিজভী বলেন, ‘সরকারের একমাত্র ইচ্ছা হচ্ছে- আমরা জোর করে ক্ষমতায় থাকবো, কারো কোনো গণতান্ত্রিক অধিকার আমরা দেবো না। যদি কাউকে গণতান্ত্রিক অধিকার দেই, তাহলে ক্ষমতায় থাকতে পারবো না, ক্ষমতার পালাবদল ঘটবে।’
এ সময় তিনি অভিযোগ করে বলেন, মঙ্গলবার সমাবেশে আসার সময় শেরে-বাংলানগরসহ বিভিন্ন জায়গায় বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের বাধা দেয়া হয়েছে। বিএনপি মুখপাত্র আরও অভিযোগ করেন, সরকার নিজেদের অবৈধ ক্ষমতাকে আঁকড়ে রাখার জন্য গুম-খুন-গুপ্তহত্যা-গ্রেফতারের পথকেই একমাত্র অবলম্বন হিসেবে বেছে নিয়েছে।

পৌর নির্বাচনে ৭৪ শতাংশ ভোট পড়েছে- নির্বাচন কমিশনের এই পরিসংখ্যানের কঠোর সমালোচনা করে তিনি বলেন, মিথ্যার ওপর বসে থাকা সরকার সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানকে নিজেদের মতো করে সাজিযে রেখে জনগণের সঙ্গে তামাশা করছে। এ সময় দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসসহ নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে দায়ের করা ‘মিথ্যা মামলা’ প্রত্যাহার করে অবিলম্বে তাদের মুক্তি দাবি করেন রিজভী।