ব্রেকিং নিউজ

রাত ১০:৪১ ঢাকা, বুধবার  ১৯শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

খালেদা জিয়া ও মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম
খালেদা জিয়া ও মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম

‘ক্ষমতায় যাওয়ার ষড়যন্ত্র করছেন খালেদা জিয়া’

আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য, কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখপাত্র এবং স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, দেশের পরিস্থিতি ঘোলাটে করে ক্ষমতায় যাওয়ার ষড়যন্ত্র করছেন বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া।

তিনি বলেন, খালেদা জিয়া ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য মরিয়া হয়ে ওঠেছেন। তিনি পরিস্থিতি ঘোলাটে করে ক্ষমতায় যেতে চান। তিনিই দেশবিরোধী ও সরকারবিরোধী গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছেন।

নাসিম আজ শুক্রবার বিকেলে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ধানমন্ডিস্থ রাজনৈতিক কার্যালয়ে কেন্দ্রীয় ১৪ দল আয়োজিত এক যৌথ সভায় সভাপতির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

গুলশানের রেঁস্তোরায় সন্ত্রাসী হামলার এবং দেশের বিভিন্ন স্থানে গুপ্তহত্যার প্রতিবাদে আগামী ১১ জুলাই কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ১৪ দল আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশ সফল করার লক্ষে ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ, গাজীপুর, নারায়ণগঞ্জ, মানিকগঞ্জ ও ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক এবং সংশ্লিষ্ট জেলার আওয়ামী লীগ দলীয় জাতীয় সংসদ সদস্যদের সাথে এই যৌথসভায় অনুষ্ঠিত হয়।

আওয়ামী লেিগর সভাপতিমন্ডলীর সদস্য বলেন, খালেদা জিয়া এখনো দেশের শান্তি চান না। চান দেশের পরিস্থিতি ঘোলাটে করে ক্ষমতায় যেতে। নিজের স্বার্থ চরিতার্থ করতে। কিন্তু দেশের মানুষ এটা হতে দেবে না। তারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বেই ঐক্যবদ্ধ আছে, থাকবে।

আগামী ১১ জুলাই সমাবেশ সফল করার আহ্বান জানিয়ে দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে মুখপাত্র নাসিম বলেন, মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি এবং সফল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ক্ষমতা থেকে উৎখাতের জন্য গভীর চক্রান্ত শুরু হয়েছে। এই জঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদের মুখোশ উন্মোচিত হয়ে যাচ্ছে? এদের আগে পিছে কারা রয়েছে?

গুলশানের সন্ত্রাসী হামলা এবং গতকাল ঈদের জামাতের আগে কিশোরগঞ্জের শোকালিয়া সন্ত্রাসী হামলার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, বিদেশীদের কাপুরুষের মতো হত্যা করা, ঈদের দিন নামাজের আগে মুসলমান হয়ে মুসলমানদের উপর যারা হামলা করে এরা কোন ইসলাম ধর্মে বিশ্বাস করে? যারা নির্বিচারে মানুষ হত্যা করে তারা কোন ইসলামে বিশ্বাস করে? এরা কোন ইসলামের স্বার্থে কাজ করে ?

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, এই পাপিষ্টরা ইসলাম ধর্মে বিশ্বাস করে না।এরা অশুভ শক্তি, এরা দানবীয় শক্তি এরা মানবতার শত্রু।এদেরকে সম্পূর্ণভাবে পরাজিত না করা পর্যন্ত আমাদেরকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে।

সন্ত্রাস বিরোধী কমিটি গঠন প্রসঙ্গে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, সকল শ্রেণী পেশার মানুষকে এই কমিটিতে স্থান দিতে হবে। জনগনের শক্তিকে কেউ পরাজিত করতে পারে না। তাই আপনারা সকল শ্রেণী পেশার মানুষকে সাথে নিয়ে এই কমিটি করবেন।

আগামী ১২ জুলাই থেকে ২১ জুলাই প্রধানমন্ত্রীর আহ্বানে সাড়া দিয়ে সারাদেশে ইউনিয়ন, উপজেলা, জেলা, পৌরসভায় এই সন্ত্রাস বিরোধী কমিটি গঠন করার নির্দেশ দেন তিনি।

‘নির্বাচন দিলেই এই সকল সন্ত্রাসী হামলা বন্ধ হয়ে যাবে’ বেগম খালেদা জিয়ার এমন বক্তব্যের জবাবে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ বলেন, খালেদা জিয়া যেকোনো মূল্যে ক্ষমতায় যেতে চান। তার বক্তব্যে সেটিই প্রমাণিত হয়েছে। আর এজন্যেই তার উৎসাহে, প্রেসক্রিপশনে সন্ত্রাসী কার্যক্রম চলছে দেশে, তার বক্তব্যে সেটিই প্রমাণিত হয়েছে।

তিনি বলেন, সন্ত্রাসী কর্মকান্ড নিয়ে সারাবিশ্বে যখন আলোচনা হচ্ছে। সেখানে খালেদা জিয়া কিভাবে বলেন নির্বাচন দিলেই এসব বন্ধ হবে? এসব হত্যাকান্ডের সাথে আন্তর্জাতিক কোনো সম্পর্ক নেই। খালেদার বক্তব্য অনুযায়ী তাদের সাথেই সন্ত্রাসীদের সম্পর্ক প্রমাণিত হয়েছে। নির্বাচন দিলেই এসব সমাধান হবে? এ ধরনের উস্কানির মাধ্যমে খালেদা দেশের মানুষের মধ্যে বিভ্রান্তি সৃষ্টির চেষ্টা করছেন।

এ সময়ে আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য এডভোকেট সাহারা খাতুন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক, আর্ন্তজাতিক বিষয়ক সম্পাদক কর্ণেল (অব.) ফারুক খান, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক মোজাম্মেল হক, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়–য়া, গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আজমত উল্লাহ, সংসদ সদস্য ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লা প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

এছাড়াও আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আফজাল হোসেন, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাহলী, মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি, পাট ও বস্ত্র প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম, কমিউনিস্ট কেন্দ্রের আহবায়ক ডা. ওয়াজেদুল ইসলাম খান, যুগ্ম আহবায়ক ড. অসীত বরণ রায়, বাসদের আহবায়ক রেজাউর রশিদ খান, মমতাজ বেগম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।