Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

রাত ৯:৩৪ ঢাকা, বুধবার  ২১শে নভেম্বর ২০১৮ ইং

ক্ষতিকর কোলেস্টেরল থেকে সাবধান

গত বছর পর্যন্ত হৃদরোগ বিশেষজ্ঞরা মনে করতেন কোলেস্টেরল কমানো সহজসাধ্য নয়। অবশ্য তারা Statin জাতীয় এক প্রকার কোলেস্টেরল হ্রাসকারী ওষুধ ব্যবহার করে রক্তের চর্বি বা হার্টের ধমনিতে প্লাক তৈরি করে, সেটা ৭ থেকে ১০ শতাংশ হ্রাস করেছিলেন। এই লব্ধ প্রতিক্রিয়া অত্যন্ত তাৎপর্জপূর্ণ। কেননা আগে ধারনা করা হতো যে Atherosclerosis, যা রক্তে প্লাক তৈরি করে এটা প্রতিরোধ করা অসম্ভব। আমেরিকান কলেজ অফ কার্ডিওলজির সভাপতি এবং Cleveland Clinic- এর কার্ডিওভাস্কুলার মেডিসিনের প্রধান ডাঃ স্টিভেন নিসেন, একথা বিশ্বাস করতেন।

অতীতে খুব বেশি হলে ওষুধ খেয়ে এবং জীবনযাপন ধারা বদলে ফেলে খুব সামান্যই কোলেস্টেরল কমানো যেত। ফলে ধীরে ধীরে ধমনির রক্ত চলাচলের পথ সঙ্কীর্ণ হয়ে পড়ত। হার্ট অ্যাটাক হতো। এনজিওপ্লাস্টি বা Stent লাগিয়ে চিকিৎসা করা হতো।

কিন্তু সাম্প্রতিক গবেষণায় দেখা যায়, হার্টের ধমনিতে প্লাক তৈরি বন্ধ করা সম্ভব। এখন বলা হচ্ছে, হার্টের ধমনির ভেতরে রক্তের LDL কোলেস্টেরল ১০০ mg নিচে আনা সম্ভব। হার্ট অ্যাটাক নিয়ন্ত্রনযোগ্য। সমীক্ষায় দেখা যায়, ওষুধ খেয়ে রগিরা ১৩০ থেকে ৬০-এ নামিয়ে আনতে পারে। এখন যারা এ জন্য হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকিতে আছে তারা তাদের কোলেস্টেরল LDL ৭০- এ নামিয়ে এনে হার্ট অ্যাটাক প্রতিরোধ করতে পারে। ডাঃ নিসেন বিশ্বাস করেন বর্তমান লব্ধ ফলাফল সন্তোষজনক এবং যারা ঝুঁকিতে আছে এবং যারা নেই সবাই কোলেস্টেরল হ্রাসকারী ওষুধ খেয়ে রক্তের খারাপ কোলেস্টেরল গলিয়ে ফেলতে পারে।

তথ্যঃ হেলথ ম্যাগাজিন, জার্নাল অফ দা কলেজ অফ কার্ডিওলজি অ্যান্ড কার্ডিওভাস্কুলার মেডিসিন