ব্রেকিং নিউজ

রাত ৯:২০ ঢাকা, শনিবার  ২২শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

ক্রসফায়ারে নিহতের নাম শরিফ নয়, ‘মো. মুকুল রানা’

দেশে ব্লগার অভিজিৎ রায় ও নীলাদ্রি নিলয় হত্যাকাণ্ডে অভিযুক্ত এক সন্দেহভাজন ব্যক্তি ক্রসফায়ারে নিহত হওয়ার পর পুলিশ গতকাল বলেছিল নিহত ব্যক্তির নাম শরিফ এবং ব্লগার দু’জনের হত্যাকাণ্ডে সরাসরি অংশ নিয়েছিলো।

গোয়েন্দা পুলিশের ভাষ্যমতে শরীফ নামে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ঐ ব্যক্তি আরো অন্তত পাঁচটি নামে পরিচিত ছিলো।

আরো সাতজন ব্লগার ও প্রকাশক হত্যার সঙ্গেও জড়িত থাকার কথা পুলিশ বলার পর কে এই ব্লগার হত্যার ‘মাস্টারমাইন্ড’ সেটা নিয়ে আগ্রহ তৈরি হয় জনমনে।

একই সাথে তার বন্দুকযুদ্ধে নিহত হওয়ার ঘটনায় বিভিন্ন মহলে আলোচনা ওঠে।

খোঁজ নিয়ে জানা যাচ্ছে নিহত ব্যক্তির বাড়ি সাতক্ষীরা সদরের ধুলিহর ইউনিয়নের বালুইগাছাতে।

তিনি সাতক্ষীরা সরকারি কলেজের ইংরেজি বিভাগের ছাত্র ছিলেন।

কলেজের অধ্যক্ষ লিয়াকত পারভেজ জানাচ্ছে কলেজের কাগজপত্রে তার নাম মো. মুকুল রানা।

সে ২০০৮ সালে এসএসসি পাশ করে, ২০১০ সালে এইচএসসি। এর পর সে ২০১০-১১ শিক্ষাবর্ষে সাতক্ষীরা সরকারি কলেজে প্রথম বর্ষে ভর্তি হয়।

এখন তার চতুর্থ বর্ষে পড়ার কথা ছিল। কিন্তু দ্বিতীয় বর্যের পর সে আর কলেজে আসেনি|

মুকুল রানারা তিন ভাইবোন। তার বাবা আবুল কালাম আজাদ দাবি করছেন, এ বছরের ফেব্রয়ারীতে মুকুল সাতক্ষীরা থেকে ঢাকায় যাওয়ার পথে যশোরের একটা স্থানে তাকে কয়েকজন নিয়ে যায়।

এরপর থেকে নিখোঁজ ছিল সে। গতকাল টিভিতে খবর দেখে তিনি ছেলের ব্যাপারে জানতে পারেন।

তবে মুকুল কোন সংগঠনের সাথে জড়িত ছিল কিনা সে ব্যাপারে কিছু জানেন না তার বাবা আবুল কালাম আজাদ।

এদিকে পুলিশ বলছে নিহত এই ব্যক্তি সমকামীদের পত্রিকা রূপবানের সম্পাদক জুলহায মান্নান হত্যাসহ আরো সাতজন ব্লগার ও প্রকাশক হত্যার সঙ্গেও জড়িত ছিলেন।