ব্রেকিং নিউজ

সকাল ১০:০৪ ঢাকা, রবিবার  ২৩শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

কোনো লোক যাতে হয়রানির শিকার না হয়, পুলিশকে-রাষ্ট্রপতি

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ পুলিশ সদস্যদের প্রতি তাদের দায়িত্ব পালনকালে যাতে কোনো লোক হয়রানির শিকার না হয় সে বিষয়ে বিশেষভাবে মনোযোগী হওয়ার আহবান জানিয়েছেন।
রাষ্ট্রপতি আজ বঙ্গভবনের দরবার হলে বার্ষিক পুলিশ সপ্তাহ-২০১৬ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে পুলিশ কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘জনগণের কল্যাণে আপনাদের (পুলিশ সদস্য) আরো নিবেদিত হতে হবে। আপনাদের মনে রাখতে হবে যে, জনগণের জান-মালের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা আইন-শৃংখলা বাহিনীর প্রধান দায়িত্ব।
গণতান্ত্রিক ব্যবস্থায় জনগণই সকল ক্ষমতার উৎস উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, জনগণের দেয়া করের টাকায় দেশ ও সরকার পরিচালিত হয়।
তিনি বলেন, ‘সুতরাং সকল ক্ষেত্রে জনগণের কল্যাণের বিষয়ে অগ্রাধিকার দিতে হবে। পুলিশের প্রতিটি সদস্যকে জনগণের বন্ধু হয়ে উঠতে হবেÑ যাতে তারা পুলিশকে তাদের আস্থায় নিতে পারে এবং সাহায্যের প্রত্যাশায় এগিয়ে আসে।’
রাষ্ট্রপতি বলেন, দেশের অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা বজায় রাখা এবং আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশের পুলিশের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।
তিনি আরো বলেন, অতএব, পুলিশের প্রত্যেক সদস্যকে দেশের সার্বিক উন্নয়ন ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করার পাশাপাশি সামাজিক শান্তি ও ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠায় অত্যন্ত দৃঢ়তার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করতে হবে।
তিনি বলেন, সমাজে আইন-শৃংখলা প্রতিষ্ঠায় পুলিশ ও জনগণের মধ্যে সহযোগিতা ও অংশীদারিত্ব প্রয়োজন। তিনি দেশের আইন-শৃংখলা পরিস্থিতির আরো উন্নয়নে এক সঙ্গে কাজ করার প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন।
রাষ্ট্রপতি বলেন, সন্ত্রাসবাদ ও জঙ্গীবাদ এখন কোনো একটি অঞ্চলের মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়Ñ বরং এখন এটি ‘বৈশ্বিক সমস্যা’। তিনি আরো বলেন, প্রযুক্তিভিত্তিক অপরাধ মোকাবেলায় প্রযুক্তিনির্ভর পুলিশী ব্যবস্থার কোনো বিকল্প নেই।
রাষ্ট্রপতি আরো বলেন, ‘সন্ত্রাসবাদ ও জঙ্গীবাদ দমনে পুলিশের কর্ম-কৌশল ও সাফল্য ইতোমধ্যে জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে প্রশংসিত হয়েছে এবং আমি আশা করছি, দেশের সংবিধান ও গণতন্ত্র রক্ষার জন্য আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা ও সকল ধরনের রাষ্ট্রবিরোধী কার্যক্রম প্রতিরোধে আগামী দিনগুলোতে পুলিশ সদস্যরা আরো আন্তরিকতার সঙ্গে তাদের দায়িত্ব-কর্তব্য পালন করবে।’
অনুষ্ঠানে অন্যান্যেও মধ্যে উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মোজাম্মেল হক কামাল ও আইজিপি এ কে এম শহীদুল হক।