Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

সকাল ১০:২৮ ঢাকা, বৃহস্পতিবার  ১৫ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

কুষ্টিয়ায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত
নিহত সোবহান আলী ও হাসানুজ্জামান লালন

কুষ্টিয়ায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই ডাকাত নিহত : পুলিশ

কুষ্টিয়ায় পুলিশের সঙ্গে পৃথক বন্দুকযুদ্ধে সোবহান আলী (৩৯) ও হাসানুজ্জামান লালন (৩৭) নামের দুই ডাকাত নিহত হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশের ৭ সদস্য আহত হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ একটি বিদেশী পিস্তল, দেশীয় তৈরি পাইপগান, একটি শার্টারগান, ৩ রাউন্ডগুলি, ডাকাতি কাজে ব্যবহৃত করাত ও রামদাসসহ দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়।

ভেড়ামারা থানার ওসি নুর হোসেন খন্দকার গণমাধ্যমকে জানান, ভেড়ামারা থানা পুলিশের সঙ্গে বন্দুক যুদ্ধে হাসানুজ্জামান লালন (৩৭) নামের এক ডাকাত নিহত হয়। বুধবার ভোরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ জানতে পারে ভেড়ারামার দশমাইল নামক স্থানে একদল ডাকাত ডাকাতি করছে। এ সময় ভেড়ামারা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছালে সেখানে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে এক ডাকাত নিহত হয়। পুলিশ জানায় তিনি গাংনীর মনোহরদিয়া গ্রামের আলীম উদ্দিনের ছেলে হাসানুজ্জামান লালন। এ সময় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি শর্টারগান, এক রাউন্ডগুলি ও করাত উদ্ধার করে। এ সময় ভেড়ামারা থানার ৩ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। পরে লাশ দুটি ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

অপর দিকে বুধবার ভোরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কুষ্টিয়া গোয়েন্দা পুলিশ ও থানা পুলিশের একটি দল কুষ্টিয়া শহরের বাড়াদীর ভাগারের গোরস্থান সংলগ্ন এলাকায় পৌঁছালে ডাকাত দল পুলিশকে লক্ষ করে গুলি ছোড়ে। এ সময় পুলিশও পাল্টা গুলি ছুড়লে ঘটনাস্থলে কুমারখালির মনোহরপুর এলাকার নুর উদ্দিনের ছেলে ডাকাত সোবাহান আলী (৩৯) নিহত হয়। এ সময় তার সঙ্গীরা পালিয়ে যায়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশী পিস্তল, একটি দেশীয় তৈরি শার্টারগান, ২ রাউন্ড গুলি ও করাত উদ্ধার করে। তার বিরুদ্ধে কুমারখালী, রাজবাড়ী, ঈশ্বরদী কুষ্টিয়া মডেল থানায় ৮টি মামলা রয়েছে। এ সময় মডেল থানার ৪ পুলিশ সদস্য আহত হয়।