Press "Enter" to skip to content

কুমিল্লায় কর্নেল অলি’র গাড়িতে হামলা

কুমিল্লার চান্দিনায় লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এলডিপি) সভাপতি ড. কর্নেল অলি আহাম্মদের (অব.) গাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার বেলা ১টার দিকে চান্দিনা থানার সন্নিকটে চান্দিনা পাইলট স্কুল খেলার মাঠ সংলগ্ন সড়কে ওই ঘটনা ঘটে।

চান্দিনা রেদোয়ান আহমেদ ডিগ্রি কলেজ ক্যাম্পাস-২ এ নব-নির্মিত মমতাজ আহমেদ ভবনের উদ্বোধীন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করতে যাওয়ার পথে দুষ্কৃতকারীরা তার গাড়িতে হামলা চালিয়ে ইট-পাটকেল ছুড়ে। এতে তাকে বহনকারী পাজেরু গাড়ির (ঢাকা মেট্রো-ঘ-১৩-৪৬৪৬) পেছনের গ্লাস সম্পূর্ণরূপে ভেঙে যায়। তবে ড. কর্নেল অলি আহাম্মদ (অব.) বীরবিক্রম অক্ষত রয়েছেন।

এদিকে অনুষ্ঠানে বক্তৃতাকালে পুলিশ ও প্রশাসনের প্রতি বিষোদগার করেন লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এলডিপি) সভাপতি ড. কর্নেল অলি আহাম্মদ (অব.) বীরবিক্রম। এসময় তিনি প্রধানমন্ত্রীর কাছে ওই হামলাকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের আহ্বান জানান।

সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, ‘পুলিশের সামনে মুক্তিযোদ্ধাকে হত্যার উদ্দেশ্যে সন্ত্রাসীরা হামলা করবে, এ জন্য এ দেশকে স্বাধীন করিনি। আওয়ামী লীগ মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তি, আওয়ামী লীগকে ধন্যবাদ জানাই। যার কর্মীরা মুক্তিযোদ্ধাকে হত্যা করতে চায়! পুলিশ ও ইউএনও অফিসের পাশে, আগে-পেছনে একাধিক পুলিশ অফিসার এমনকি ওসির উপস্থিতিতে এ ধরনের হামলা আমি কল্পনাও করতে পারি না। তারা দেশের ক্ষতি করেছে, আওয়ামী লীগের ক্ষতি করেছে।’

বিকেলে চান্দিনা পৌর এলডিপি, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের সম্মেলন বন্ধ করে দেওয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘রাজনৈতিক দলের সভা, সমাবেশের জন্য ইউএনও, ওসি’র অনুমতি নিতে হবে কেন। এটা গণতন্ত্রের জন্য হুমকি।’ হামলার প্রসঙ্গ টেনে হামলার সময় চান্দিনা থানার ওসি’র নিরব ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেন তিনি।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন- কলেজ প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালনা পর্ষদ সভাপতি, লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এলডিপি) মহাসচিব ড. রেদোয়ান আহমেদ। সাবেক এই প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘একজন বীরবিক্রমকে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা করা হয়েছে। এই বিচারের ভার আমি চান্দিনাবাসীর নিকট দিলাম। জনগণ সন্ত্রাসীদের পক্ষে থাকে না। আগামী নির্বাচনে ভোটের মাধ্যমেই জনগণ এর বিচার করবে।’

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন- কলেজের আজীবন দাতা সদস্য মিসেস মমতাজ আহমেদ, পরিচালনা পর্ষদ সদস্য সুলতান মঈন আহামেদ রবীন। অন্যদের মধ্যে বক্তৃতা করেন- কলেজ অধ্যক্ষ মো. মনিরুল ইসলাম ভূইয়া। সঞ্চালনা করেন- কলেজের আইসিটি বিভাগের প্রভাষক মো. গিয়াস উদ্দিন ভূইয়া।

Mission News Theme by Compete Themes.