Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

সন্ধ্যা ৭:৩১ ঢাকা, মঙ্গলবার  ২০শে নভেম্বর ২০১৮ ইং

কাস্টমস কমিশনার হাফিজ ও তার স্ত্রীর নথি তলব

সাময়িক বরখাস্তকৃত কাস্টমস কমিশনার এম. হাফিজুর রহমান ও তার স্ত্রী মোরশেদা জাহানের আয়কর নথি তলব করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। অবৈধ সম্পদ অনুসন্ধানের অংশ হিসেবে দুদক উপ-পরিচালক মো. জুলফিকার আলী বুধবার বিকালে তলবি নোটিস পাঠিয়েছেন।
দুদক সূত্র জানায়, আয়কর নথি চেয়ে কর অঞ্চল ১-এর কর কমিশনারকে চিঠি দেয়া হয়েছে। অন্যদিকে হাফিজের চাকরির বিবরণী চেয়ে চিঠি দেয়া হয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যানের কাছে।
২০০২ সালের পর থেকে চাকরি জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত তিনি কোথায় কোথায় চাকরি করেছেন এবং বেতন-ভাতাবাবদ কত টাকা উত্তেলন করেছেন সে বিষয়ে বিস্তারিত জানতে চাওয়া হয়েছে এনবিআর চেয়ারম্যানকে দেয়া চিঠিতে। এ সংক্রান্ত নথি-পত্র আগামি ১০ ডিসেম্বর সকাল সাড়ে ৯টার মধ্যে অনুসন্ধান কর্মকর্তার কাছে পাঠাতে বলা হয়েছে।
দুদক সূত্র জানায়, কাস্টমস কমিশনার অবৈধ উপায়ে প্রায় শত কোটি টাকার অবৈধ অর্থ অর্জন করেন। রাজধানীর ধানমন্ডি, গুলশানসহ অভিজাত এলাকায় নামে-বেনামে একাধিক ফ্ল্যাট কেনেন। ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের নামে বিপুল অর্থ বিদেশে পাচার করেন।
সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে গত বছর তার বিরুদ্ধে অনুসন্ধানে নামে দুদক। এর আগে দুদক উপ-পরিচালক মাহমুদ হাসান অনুসন্ধান চালিয়ে হাফিজ দম্পতির বিরুদ্ধে সম্পদ বিবরণী দাখিল করার সুপারিশ করে কমিশনে প্রতিবেদন দাখিল করেন। কিন্তু কমিশন ওই প্রতিবেদন গ্রহণ না করে বিষয়টি নিয়ে ফের অনুসন্ধান চালাতে উপ-পরিচালক জুলফিকার আলীকে কর্মকর্তা নিয়োগ করেন।
উপ-পরিচালক জুলফিকার আলীও কমিশনে একই ধরণের প্রতিবেদন দাখিল করেন। দেশ এবং দেশের বাইরে বেশ কয়েকটি ঠিকানার কথা উল্লেখ করে তিনি ওই সব ঠিকানায় হাফিজের নামে নোটিশ জারির সুপারিশ করেন। কমিশন ওই সপারিশও গ্রহণ করেননি। কমিশন বিষয়টি নিয়ে অধিকতর অনুসন্ধানের নির্দেশ দেয়। এরই অংশ হিসেবে হাফিজ-দম্পতির নথি তলব করা হলো।