ব্রেকিং নিউজ

রাত ২:৫১ ঢাকা, বৃহস্পতিবার  ২০শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

কার্যালয় ঘিরে কড়াকড়িতে বিচ্ছিন্ন খালেদা

Like & Share করে অন্যকে জানার সুযোগ দিতে পারেন। দ্রুত সংবাদ পেতে sheershamedia.com এর Page এ Like দিয়ে অ্যাক্টিভ থাকতে পারেন।

 

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার কার্যালয় ঘিরে ফের কড়াকড়ি আরোপ করা হয়েছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারীবাহিনীর সদস্যদের কড়া নজরদারির কারণে গতকাল বিএনপি নেতাকর্মীদের কেউ যাননি দলীয় চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে। দলের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে ওই কার্যালয়ে এদিন কাউকে প্রবেশ করতে বা বের হতে দেয়া হয়নি। সংবাদ কর্মীরাও সেখানে প্রবেশের সুযোগ পাননি। শনিবার সকালে টেলিফোন, ইন্টারনেট ও ক্যাবল টিভি সংযোগ এবং মোবাইল নেটওয়ার্ক বন্ধ করে দেয়ার পর থেকে কার্যত যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন অবস্থায় আছেন ২০ দলীয় জোট নেত্রী। গতকাল থেকে কড়াকড়ি আরোপ করায় নেতাকর্মীদের থেকেও বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছেন তিনি।

বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ের সামনে থেকে পোশাকধারী পুলিশ সদস্যদের সরিয়ে নেয়া হয়েছে আশপাশের গলিতে। কার্যালয়ের পকেট গেটটিও খুলে রাখা হয়েছে। কার্যালয়ের সামনে ও আশপাশে গোয়েন্দা সংস্থার সদস্য ও সাদা পোশাকে পুলিশ সদস্যদের তৎপরতা বাড়ানো হয়েছে। গতকাল সকাল থেকে চেয়ারপারসন কার্যালয়ে কাউকে আসা-যাওয়া করতে দেয়া হচ্ছে না। সাংবাদিকদেরও চেয়ারপারসন কার্যালয়ে ঢুকতে দেয়া হয়নি। সকালে কার্যালয়ের গেট থেকে মাজহারুল ইসলাম নামে একজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তিনি একটি সিটিসেল মোবাইল সেট ও কিছু তার নিয়ে গিয়েছিলেন কার্যালয়ে। এর আগে রোববার সন্ধ্যায় কার্যালয়ের সামনে থেকে গ্রেপ্তার করা হয় চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মোসাদ্দেক আলী ফালুসহ কয়েকজনকে। এদিকে পুলিশ সূত্র জানিয়েছে, বিএনপি চেয়ারপারসনের নিরাপত্তার ব্যাপারে সতর্ক রয়েছে পুলিশ। পুলিশের কড়াকড়ির কারণে গতকাল খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে যাননি কেউ। ৩রা জানুয়ারি রাতে কার্যালয়ের সামনে ও দুইপাশে ব্যারিকেড দিয়ে খালেদা জিয়াকে অবরুদ্ধ করে পুলিশ। পরে ১৮ই জানুয়ারি মধ্যরাতে ব্যারিকেড তুলে নেয়া হয়। তারপর নেতাকর্মীরাও সেখানে আসা-যাওয়ার সুযোগ পেয়েছেন। সর্বশেষ ৩০শে জানুয়ারি মধ্যরাতে কার্যালয়ের বিদ্যুৎ-টেলিফোন-ক্যাবল টিভি-ইন্টারনেট সংযোগ ও মোবাইল নেটওয়ার্ক বন্ধ করে দেয়া হয়। পরে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া হলেও অন্যান্য সংযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে। সবশেষ রোববার রাতে খালেদা জিয়ার সঙ্গে তার উপদেষ্টা  মোসাদ্দেক আলী দেখা করে বের হওয়ার পর গোয়েন্দা পুলিশ আটক করে। এছাড়া রোববার রাতে সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও বিচারপতি আবদুর রউফসহ বেশ কয়েকজন শিক্ষক, সাংবাদিক নেতা খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ করলেও পুলিশ কাউকে বাধা  দেয়নি।