মাহবুব-উল আলম হানিফ
মাহবুব-উল আলম হানিফ, ফাইল ফটো

কাদেরের চিকিৎসার সঙ্গে খালেদার চিকিৎসা তুলনা ঠিক নয়

সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের আর খালেদা জিয়ার চিকিৎসার তুলনা করা রাজনীতির জন্য দুর্ভাগ্যজনক বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ।

ওবায়দুল কাদেরকে একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা উল্লেখ করে হানিফ আরো বলেন, তিনি জীবন বাজি রেখে দেশের জন্য যুদ্ধ করেছেন। তার সঙ্গে দন্ডপ্রাপ্ত কোন আসামির তুলনা করা ঠিক হবে না।

রাজধানীর ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে আজ সকালে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে হানিফ এ কথা বলেন।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক বলেন, ওবায়দুল কাদেরকে প্রথমদিকে দেশেই চিকিৎসার ব্যাবস্থা করা হয়েছিল। যখন তার অবস্থা সংকটাপন্ন হয়েছে, তখন তাকে বাইরে নিয়ে যাওয়ার ব্যাবস্থা করা হয়।

তিনি বলেন, বেগম খালেদা জিয়া দন্ডপ্রাপ্ত একজন কয়েদী। কারাবিধি অনুযায় কারা কতৃপর্ক্ষ তার চিকিৎসার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে। এখানে সরকার বা আওয়ামী লীগের কিছু করার নেই।

বেগম জিয়ার মুক্তির দাবিতে বিএনপির মানববন্ধন কর্মসূচির বিষয়ে জানতে চাইলে হানিফ বলেন, বিএনপির রাজনীতি বলে এখন আর কিছু নেই। বিএনপি দেউলিয়া হয়ে গণমাধ্যম নির্ভর একটি দলে পরিনিত হয়েছে।

তিনি বলেন, বিএনপির নেতারাও জানে রাষ্ট্রপতির ক্ষমা প্রদর্শন বা আইনী প্রক্রিয়া ছাড়া তার (খালেদা জিয়া) মুক্তির কোন পথ নেই। তারপরও তারা গণমাধ্যমে থাকার জন্যই এ ধরনের কর্মসূচি পালন করছে।

হানিফ বলেন, ‘ওবায়দুল কাদেরর অবস্থা ক্রমশই উন্নতির দিকে যাচ্ছে। তিনি এখন সংকটাপন্ন অবস্থায় নেই। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে তার অবস্থা স্বাভাবিক হবে বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন। পরে তার বাইপাস সার্জারী করা হবে।’ তিনি আগামী দু’এক সপ্তাহের মধ্যে সুস্থ্য অবস্থায় সবার মধ্যে ফিরে আসবেন বলেও প্রত্যাশা করেন হানিফ।

সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, দপ্তর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ এমপি, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক এডভোকেট আফজাল হোসেন, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।