ব্রেকিং নিউজ

রাত ১২:১৫ ঢাকা, মঙ্গলবার  ১১ই ডিসেম্বর ২০১৮ ইং

কাতারের জ্বালানিমন্ত্রী শাদ শেরিদা আল কাব্বি।
কাতারের জ্বালানিমন্ত্রী শাদ শেরিদা আল কাব্বি।

কাতার কেন ওপেক ছাড়ছে?

এমনিতেই সৌদি জোটের অবরোধে কোণঠাসা মধ্যপ্রাচ্যের জ্বালানি তেল ও তরল গ্যাস রফতারিকারক দেশ কাতার।

তার ওপর সম্প্রতি তেলের উৎপাদন উল্লেখযোগ্য মাত্রায় বাড়িয়ে দিয়েছে রাশিয়া ও সৌদি আরব। এ কারণে হতাশ হয়ে ওপেক ছেড়েছে কাতার। খবর রয়টার্সের।

আন্তর্জাতিক এক বার্তা সংস্থাকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে ওপেকে নিযুক্ত ইরানের প্রতিনিধি হোসেইন কাজেমপুর আরদেবিলি এ কথা বলেন।

তেল রফতানিকারক দেশগুলোর সংস্থা- ওপেক থেকে কাতার নিজে বেরিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করার পর এক তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় এ কথা বলেছে ইরান।

কাতার গত সোমবার হঠাৎ ঘোষণা দেয়, ১ জানুয়ারি থেকে দেশটি ওপেক থেকে বেরিয়ে যাবে।

ইরান বলছে- কাতার হতাশ হয়ে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে এবং আমরা তাদের এ হতাশা উপলব্ধি করি। ওপেকের বহু সদস্য সৌদি আরব ও রাশিয়ার পক্ষ থেকে তেল উৎপাদন বৃদ্ধির সিদ্ধান্তে হতাশ হয়েছে। ওই দুই দেশ গত মে মাস থেকে উল্লেখযোগ্য মাত্রায় তেলের উৎপাদন বাড়িয়ে দিয়ে তেলের দাম ব্যারেলপ্রতি ৩০ ডলার কমিয়ে দিয়েছে।

শীর্ষ মিডিয়া