গত ২৪ ঘণ্টায় বাংলাদেশে ১৭ হাজার ৮৩৭টি নমুনা পরীক্ষা করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত আরও ৪ হাজার ১৪ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। এটিই এখন পর্যন্ত এক দিনে সর্বোচ্চ শনাক্ত। এ নিয়ে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে এক লাখ ৪১ হাজার ৮০১ জনে দাঁড়াল। একই সময়ে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন আরও ৪৫ জন। এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ১ হাজার ৭৮৩ জন

আজ সোমবার দুপুর আড়াইটার দিকে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে অনলাইনে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের দৈনন্দিন স্বাস্থ্য বুলেটিনে এ তথ্য জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ১৭ হাজার ৮৩৭টি নমুনা পরীক্ষা করে চার হাজার ১৪ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ২২ দশমিক ৫০ শতাংশ। এ পর্যন্ত শনাক্ত হয়েছেন এক লাখ ৪১ হাজার ৮০১ জন। মারা গেছেন আরও ৪৫ জন। তাদের মধ্যে ৩৬ জন পুরুষ ও নয় জন নারী। বয়সভিত্তিক বিশ্লেষণে তাদের মধ্যে দুই জনের বয়স ২১-৩০ বছরের মধ্যে, তিন জনের বয়স ৩১-৪০ বছরের মধ্যে, সাত জনের বয়স ৪১-৫০ বছরের মধ্যে, ১১ জনের বয়স ৫১-৬০ বছরের মধ্যে, ১৪ জনের বয়স ৬১-৭০ বছরের মধ্যে, ছয় জনের বয়স ৭১-৮০ বছরের মধ্যে, একজনের বয়স ৮১-৯০ বছরের মধ্যে ও একজনের বয়স ৯১-১০০ বছরের মধ্যে। দেশে এখন পর্যন্ত করোনায় মৃত্যুবরণ করেছেন এক হাজার ৭৮৩ জন।

তিনি আরও জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন আরও দুই হাজার ৫৩ জন। এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৫৭ হাজার ৭৮০ জন। সব মিলিয়ে এ পর্যন্ত সাত লাখ ৪৮ হাজার ৩৪টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে।

স্বাস্থ্য বুলেটিনে জানানো হয়, দেশে মোট পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৮ দশমিক ৯৬ শতাংশ। আর মোট শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৪০ দশমিক ৭৫ শতাংশ ও মৃত্যুর হার এক দশমিক ২৬ শতাংশ।