Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৭:৪৮ ঢাকা, সোমবার  ১৯শে নভেম্বর ২০১৮ ইং

কমিউনিটি রেডিও নীতিমালা সংশোধন করা হবে :তথ্যমন্ত্রী

তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, কমিউনিটি রেডিওকে আর্থিক ও প্রযুক্তিগতভাবে টেকসই করতে নীতিমালা সংশোধন করা হবে।
তিনি আজ জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে ‘টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জন এবং ৭ম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা বাস্তবায়নে কমিউনিটি রেডিও’র ভূমিকা’ শীর্ষক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতা করছিলেন।
বিসিআরএ-এর সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ তারিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন জাতীয় যাদুঘরের ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান এম. আজিজুর রহমান, পিকেএসএফ’র ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর মো. ফজলুল কাদের, বিএনএনআরসি’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এএইচএম বজলুর রহমান ও ওয়েব ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক মহসিন আলী।
তথ্যমন্ত্রী বলেন, কমিউনিটি রেডিও টেকসই উন্নয়নে ভূমিকা রাখে। কিন্তু নিজেই টেকসই নয়। চ্যালেঞ্জ হচ্ছে কমিউনিটি রেডিওকে আর্থিক ও প্রযুক্তিগতভাবে টেকসই করা।
তিনি বলেন, আর্থিকভাবে সক্ষম করতে নীতিমালা পর্যালোচনা করা হচ্ছে। এ জন্য আসছে নতুন বছরে একটি সুখবর আসবে বলে আশা রাখি।
মন্ত্রী বলেন, প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর সুস্বাস্থ্য, শিক্ষা, অধিকারসহ অবাধ তথ্যপ্রবাহ নিশ্চিত করতে কমিউনিটি রেডিও বিরাট ভূমিকা রাখতে পারে। তিনি বলেন, কমিউনিটি রেডিও কণ্ঠহীনদের কণ্ঠস্বর হিসেবে ভূমিকা রাখতে শুরু করেছে। স্বাস্থ্য, লিঙ্গ, বাল্যবিবাহ, মাতৃ ও শিশু মৃত্যু বিষয়েও কমিউনিটি রেডিও’র ভূমিকা উল্লেখযোগ্য।
হাসানুল হক ইনু বলেন, সরকার প্রান্তিক জনগোষ্ঠীকে এগিয়ে নিতে উন্নয়ন বরাদ্দ ও নানা পদক্ষেপ নিচ্ছে, যা তারা জানে না। সরকারি বরাদ্দ, অনুদান ও পদক্ষেপ সম্পর্কে জনগোষ্ঠীকে জানাতে যতœবান হতে হবে। এ সময় তিনি অধিকারহীন মানুষকে অধিকারপ্রাপ্ত করার দায়িত্ব কমিউনিটি রেডিও’র বলেও উল্লেখ করেন।
সভায় কমিউনিটি রেডিও সম্পর্কে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক এসএম শামীম রেজা।