আ স ম আবদুর রব।
আ স ম আবদুর রব। ফাইল ফটো

ঐক্যফ্রন্টের শপথ নেয়ার প্রশ্নই উঠে না

নির্বাচনের ফল বয়কট করা জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের কোনো জনপ্রতিনিধি শপথ নেবে না। তাদের শপথ নেয়ার প্রশ্নই উঠে না বলে জানিয়েছেন ফ্রন্টের অন্যতম শীর্ষ নেতা আ স ম আবদুর রব।

রোববার দুপুরে রাজধানীর মতিঝিলের মেট্রোপলিটন চেম্বার ভবনে ঐক্যফ্রন্টের স্টিয়ারিং কমিটির বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে এ কথা বলেন রব।

জাসদ সভাপতি আ স ম আবদুর রব বলেন, ভোট ডাকাতি, কেন্দ্র দখল আর নীলনকশার নির্বাচন আমরা বয়কট করেছি। এই নির্বাচনে জনগণের মতামতের প্রকাশ পায়নি।তাই ঐক্যফ্রন্টের বিজয়ীদের শপথ নেয়ার প্রশ্নই উঠে না।

একই কথা জানান গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসীন মন্টু। ঐক্যফ্রন্টের শরিক গণফোরামের দুই এমপির শপথ নেয়ার ব্যাপারে দলের সভাপতি ড. কামাল হোসেন ‘ইতিবাচক চিন্তা’র কথা বলার পর মন্টু বলেন, ঐক্যফ্রন্টের ৭ নির্বাচিত প্রতিনিধি শপথ নেবেন না।

গণফোরাম সাধারণ সম্পাদক বলেন, গতকাল কিছু মিডিয়া ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেনের বক্তব্য ভুলভাবে উপস্থাপন করেছে। আমরা পরিষ্কারভাবে বলছি, ঐক্যফ্রন্টের কারও শপথ নেওয়ার প্রশ্নই আসে না।

তাছাড়া বিএনপি মহাসচিব ও ঐক্যফ্রন্টের মুখপাত্র মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরও ইতোপূর্বে সাফ জানিয়ে দিয়েছিলেন যে, আমাদের এমপিরা কোনোভাবেই শপথ নেবেন না।

রোববারের জরুরি বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন ড. কামাল হোসেন, বিএনপি মহাসচিব ও ঐক্যফ্রন্টের মুখপাত্র মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর আবদুল কাদের সিদ্দিকী, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, নাগরিক ঐক্যের আহবায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, গণফোরামের নির্বাচিত সংসদ সদস্য সুলতান মোহাম্মদ মনসুর প্রমুখ।

৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ২৮৮ আসনে জয় পায় মহাজোট। আর জাতীয় ঐক্যফ্রণ্ট ৭টি আসনে জয়ী হয়।

বিএনপি আগেই জানিয়ে দিয়েছিল তাদের নির্বাচিত ৫ প্রতিনিধি শপথ নেবে না। তবে গণফোরামের দুই জনপ্রতিনিধির শপথ নেয়া নিয়ে ধোয়াশা ছিল।আজ সেটি কাটল।