ওবায়দুল কাদের।
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। ফাইল ফটো

‘ঐক্যফ্রন্টের ঐক্য থাকুক’ -সেতুমন্ত্রী

ঐক্যফ্রন্টকে সংসদে ও সংসদের বাইরে শক্তিশালী ও দায়িত্বশীল ভূমিকা রাখার আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, ‘ঐক্যফ্রন্টের ঐক্য থাকুক এটা আমরাও চাই। দেশের গণতন্ত্রের সুরক্ষার জন্য শক্তিশালী ও দায়িত্বশীল বিরোধীদল প্রয়োজন।’

ওবায়দুল কাদের আজ মঙ্গলবার বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষ্যে আয়োজিত এক যৌথ সভায় একথা বলেন।

আওয়ামী লীগের সম্পাদকমন্ডলীর সঙ্গে সহযোগী সংগঠনের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ আওয়ামী লীগ সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক এবং মেয়র ও দলীয় জাতীয় সংসদ সদস্যদের এই যৌথসভা অনুষ্ঠিত হয়।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘ঐক্যফ্রন্টে কোন ঐক্য নেই। আমরা এটা চাই না। আমরা চাই দেশে একটা দায়িত্বশীল বিরোধী গড়ে উঠুক। তাদের রাজনীতি হচ্ছে বিরোধিতার জন্য বিরোধিতা করা।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, এখন বিরোধী দলের বাস্তবে ভূমিকা পার্লামেন্টে নেই, কোন স্থানেই নেই। গত দশ বছর চলে গেল, ছোট একটি আন্দোলনও তারা (বিএনপি) করতে পারেনি। শক্তিশালী বিরোধী দল আমরা চাই। শুধু শক্তিশালী নয়, দায়িত্বশীল। কাজেই এই ভূমিকার পার্লামেন্টের ভেতর ও পার্লামেন্টের বাইরে রাখার জন্য বিরোধী দল যথাযথ ভূমিকা পালন করবে। এটাই আমাদের প্রত্যাশা, শেখ হাসিনার সরকারের প্রত্যাশা, আওয়ামী লীগ দলের প্রত্যাশা।

বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির ব্যাপারে কোন আন্তর্জাতিক চাপ নেই উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘কোনো চাপ তো নেই। তবে বিএনপি বারবার আন্তর্জাতিক মহলের কাছে ধর্ণা দিচ্ছে, নালিশ করছে।’

বেগম খালেদা জিয়ার চিকিৎসা সেবা নিয়ে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের বক্তব্যের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, বেগম খালেদা জিয়ার শারিরীক অবস্থা নিয়ে তার ডাক্তারদের কোন শঙ্কা না থাকলেও, বিষয়টি নিয়ে বিএনপি এখন রাজনীতি করার চেষ্টা করছে। খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য খারাপ এটা তো চিকিৎসকরা বলছেন না। মির্জা ফখরুল বলেছেন, কিন্তু, তিনি কি ডাক্তার? বিএনপি যদি তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে থাকে তাহলে ভিন্ন কথা।

যৌথসভায় আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জমান খান কামাল, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম আতিক, দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকন, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহা উদ্দিন নাছিম, বিএম মোজাম্মেল হক, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী ও মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, দপ্তর সম্পাদক ড. আব্দুস সোবহান গোলাপ, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক সুজিত বায় নন্দি, ঢাকা মহানগর দক্ষিন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসনাত, সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।