ব্রেকিং নিউজ

রাত ১১:০০ ঢাকা, মঙ্গলবার  ২৫শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

এবার নারী বক্ষের আদর্শ আকার ও আকৃতি নিয়ে গবেষণা!

শুধু শিল্প-সাহিত্যের বর্ণনায়ই আর সীমাবদ্ধ নয়। এবার নারীর বক্ষের সৌন্দর্য্য নিয়ে গবেষণায় এগিয়ে এসেছে বিজ্ঞান। তবে শিল্প-সাহিত্যের নান্দনিক ভাষায় নয়, বিজ্ঞান তার নিজস্ব ভাষায় বর্ণনা করেছে।

মূলত আজকাল স্তনের সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে প্লাস্টিক সার্জারি করছেন বহু নারী। আর সেই পরিপ্রেক্ষিতেই পরিচালিত ওই গবেষণা ও জরিপ থেকে উঠে এসেছে, নারী-পুরুষের দৃষ্টিতে আসলে কেমন স্তন সবচেয়ে সুন্দর বলে মনে করা হয়।

‘প্লাস্টিক অ্যান্ড রিকনস্ট্রাকটিভ সার্জারি’ জার্নালে এক দল ব্রিটিশ গবেষকের ওই গবেষণা সংক্রান্ত প্রতিবেদনটি প্রকাশিত হয়। সেখানে নারী বক্ষের আদর্শ আকার ও আকৃতির কথা বলা হয়েছে।

গবেষকরা প্রথমে ১৩১৫ জন নারী-পুরুষসহ প্লাস্টিক সার্জনদের ওপর একটি জরিপ করেন। তাদের বিভিন্ন আকার-আকৃতির স্তনের ছবি দেখানো হয়। সেখান থেকে স্তনের বিভিন্ন অংশের সবচেয়ে সুন্দরগুলোকে বাছাই করতে বলা হয়।

দেখা যায়, সবার দৃষ্টিতে সবচেয়ে সুন্দর ও প্রাকৃতিক স্তনের চেহারাটি এমন যে, পুরো স্তনের ৪৫ শতাংশ রয়েছে বৃন্ত থেকে ওপরের দিকে। আর নিচের দিকে রয়েছে ৫৫ শতাংশ। স্তনের এই রূপটি ‘ভেনাস ডি মিলো’ এর মতো। এই নারী মূর্তিটি প্রাচীন গ্রিকের অপূর্ব সব স্কাল্পচারের একটি।

ক্যাডোগান ক্লিনিকের গবেষক ড. প্যাট্রিক ম্যালুচি এবং রয়েল ফ্রি হ্যাম্পস্টেড এনএইচএস ট্রাস্ট এর ড. অলিভার ব্রানফোর্ড বলেন, কয়েকযুগ ধরে আমেরিকায় চিকিৎসকরা যে স্তন প্রতিস্থাপন করছেন, তাতে মূলত স্যালাইন ভরা থাকে। এই পদ্ধতিতে আসলে স্তনের ওপরের দিকটা বেশ ফুলিয়ে দেওয়া হয় এবং স্তনের আকারকে বড় করা হয়। এসব ক্ষেত্রে সৌন্দর্য্যবোধ বা নারী কেমন স্তন চান তার ওপর তেমন জোর দেওয়া হতো না।

তারা আরো জানান, অদ্ভুত হলেও সত্য, যেসব নারীর বয়স ৪০ পেরিয়েছে তারাই স্তন প্রতিস্থাপনের ক্ষেত্রে নিজের রুচির পরিচয় দিয়েছেন। কারণ বয়সের কারণে তাদের স্তন থেকে কোন সৌন্দর্যটি হারিয়ে গেছে তা তারা জানেন।

তবে যারা বক্ষের সৌন্দর্য্য বৃদ্ধিতে সার্জারির প্রস্তুতি নিচ্ছেন তাদের জন্য বিজ্ঞানীদের পরামর্শ হলো, আসলে মোহনীয় স্তন যেকোনো আকার ও আকৃতির হতে পারে। তাই নিজেরটি করার আগে ব্যক্তিগত পছন্দ তুলে ধরুন।

ব্রিটিশ গবেষকরা আরো জানান, নারী-পুরুষ যাদের কথাই বলুন না কেন, প্রাকৃতিক বক্ষযুগলই সবার পছন্দের। বিজ্ঞাপন বা অন্যান্য ক্ষেত্রে যেমনই দেখানো হোক না কেন, স্বাভাবিক স্তনের আলাদা সৌন্দর্য সুস্পষ্ট থাকে।

এই প্রতিবেদন Like & Share করুন।