ব্রেকিং নিউজ

দুপুর ১:০১ ঢাকা, শনিবার  ২২শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

ফাইল ফটো

এবছর ঈদে মানুষ আরামদায়ক ও নিরাপদে বাড়ি ফিরছেন : সেতুমন্ত্রী

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, এবছর ঈদে মানুষ যে কোন সময়ের তুলনায় আরামদায়ক ও নিরাপদে বাড়ি ফিরছেন।
তিনি বলেন, এবারের ঈদে রাস্তা নিয়ে কোন অভিযোগ নেই। বৃষ্টির কারণে ছোট খাটো কিছু অভিযোগ থাকতে পারে,সেগুলো আমাদের প্রকৌশলীরা দ্রুত মেরামত করে ফেলছে। এবারের ঈদ যাত্রা যে কোন সময়ের তুলনায় আরামদায়ক ও নিরাপদ।
ওবায়দুল কাদের বৃহস্পতিবার বিকেলে ঢাকা চট্টগ্রাম মহাসড়কের নারায়ণগঞ্জের সাইনবোর্ড এলাকায় পরিদর্শনকালে সাংবাদিকদের একথা বলেন।
সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, সড়কের দু’পাশে অবৈধ স্থাপনা, দোকানপাট ও বাজার স্থাপনের কারণে যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। এসব বিষয়ে আগামীতে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। আগামীতে ঈদ আসলে যেন রাস্তায় নামতে না হয়।
তিনি বলেন, এবার ঈদে আশংকা ছিল মহাসড়কগুলোতে তীব্র যানজট হবে। কিন্তু সেটি হয়নি। আমরা চেষ্টা করছি যাতে নিরাপদে জনসাধারন বাড়িতে যেতে পারে।
ওবায়দুল কাদের বলেন, আগামী নভেম্বর-ডিসেম্বরে জাইকার অর্থায়নে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাড়কে চারলেন বিশিষ্ট দ্বিতীয় কাঁচপুর, দ্বিতীয় মেঘনা ও দ্বিতীয় মেঘনা-গোমতী সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু হবে। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ৬ লেন বিশিষ্ট এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে নির্মাণের কাজ অনেক দূর এগিয়েছে। আমরা ইতোমধ্যে সম্ভাব্যতা যাচাই কাজ শেষ করেছি।
কাঁচপুর সেতুর পূর্বপাড়ে সার্কুলার রোড উদ্বোধনের পরও চালু না হওয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, কাঁচপুরের সার্কুলার সড়কটি ঈদের পর মেরামতের জন্য দরপত্র আহবান করা হবে। সড়কটি চালু হলে গাবতলীর মতো কাঁচপুর সার্কুলার সড়কের সুফল পাবে জনগণ।
এসময় সড়ক ও জনপথ বিভাগের চিফ ইঞ্জিনিয়ার মো. ফিরোজ ইকবাল, ঢাকা বিভাগীয় সুপারিটেনডেন্ট ইঞ্জিনিয়ার শাহ মো: মুসা, নারায়ণগঞ্জ পুলিশ সুপার খন্দকার মহিদ উদ্দিন সহ সড়ক ও জনপথ বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।