শীর্ষ মিডিয়া

ব্রেকিং নিউজ

রাত ১০:৪৮ ঢাকা, সোমবার  ১৭ই ডিসেম্বর ২০১৮ ইং

ফাইল ফটো

এতদিন এগোয়নি তাই ‘একটি বাড়ি একটি খামার’ প্রকল্পটির দিকে বিশেষ নজর দেব

সদ্য দায়িত্ব পাওয়া স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন (এলজিআরডি) ও সমবায় মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ একটি প্রকল্প রয়েছে ‘একটি বাড়ি একটি খামার’। এতদিন এ প্রকল্পটি ভালো ভাবে এগোয়নি। গ্রামীণ অর্থনীতি চাঙ্গা রাখতে এ প্রকল্পটির দিকে বিশেষ নজর দেয়া হবে। দেশের সার্বিক উন্নয়নের জন্য অর্থনীতিকে চাঙ্গা রাখতে গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়নে গুরুত্ব দেবো।
এখানে উল্লেখ করা যেতে পারে ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেনকে প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রীর পাশাপাশি বৃহস্পতিবার নতুন করে এলজিআরডি মন্ত্রীর দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।
প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় তাকে অতিরিক্ত দায়িত্ব হিসাবে দেয়া হয়েছে।
সাবেক এলজিআরডি মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলামকে সরকার বৃহস্পতিবার তার দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দিয়েছে। তবে সৈয়দ আশরাফ দপ্তরবিহীন মন্ত্রী হিসেবে আছেন।
বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মোশাররফ তার ফরিদপুরের বদরপুর বাসভবনে স্থানীয় সাংবাদিক ও দলীয় কর্মীদের সঙ্গে কথা বলার সময় বলেন, প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ একটি প্রকল্প রয়েছে ‘একটি বাড়ি একটি খামার’। এতদিন এ প্রকল্পটি ভালো ভাবে এগোয়নি। গ্রামীণ অর্থনীতি চাঙ্গা রাখতে এ প্রকল্পটির দিকে বিশেষ নজর দেয়া হবে।
গ্রামীণ অবকাঠামো নির্মাণের গুরুত্ব বর্ণনা করতে গিয়ে তার অতীত অভিজ্ঞতা তুলে ধরে মোশাররফ বলেন, তার কর্মজীবন শুরু করেছিলেন খুলনা জেলা পরিষদের নির্বাহী প্রকৌশলী হিসেবে। তিনি জানেন দেশের সার্বিক উন্নয়নের জন্য অর্থনীতিকে চাঙ্গা রাখতে গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়নে গুরুত্ব দিতে হবে।
মোশাররফ বলেন, গ্রামীণ অর্থনীতি চাঙ্গা হলেই দেশের জিডিপি বাড়বে এবং তিনি এই লক্ষ্য নিয়ে কাজ করতে চান।
নতুন দায়িত্ব পেয়ে বদরপুর বাসভবনে আসার পর দলীয় কর্মীসহ বিপুল সংখ্যক মানুষ তাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন- জেলা প্রশাসক সরদার সরাফত আলী, পুলিশ সুপার মো. জামিল হাসান, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান খন্দকার মোতাসেম হোসেন বাবর ও সরকারি কর্মকর্তাগণ।