ব্রেকিং নিউজ

রাত ১:১০ ঢাকা, মঙ্গলবার  ১১ই ডিসেম্বর ২০১৮ ইং

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

‘এক ব্যক্তিই একটি কোম্পানি গঠন করতে পারবে’

মন্ত্রিসভা আজ ‘ওয়ান ম্যান কোম্পানি’ গঠনের অনুমতির বিধান রেখে কোম্পানি (সংশোধনী) আইন-২০১৮ এর খসড়া নীতিগতভাবে অনুমোদন দিয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে বাংলাদেশ সচিবালয়ে আজ অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সাংবাদিকদের জানান, প্রস্তাবিত এই আইনে বলা হয়েছে, একজন ব্যাক্তি ‘ওয়ান ম্যান কোম্পানি’ গঠন করতে পারবে।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, প্রস্তাবিত কোম্পানি আইনের সংশোধনীতে একটি নতুন ধারণা আনা হয়েছে। যা দেশের ব্যবসা-বাণিজ্যে এতোদিন ছিল অনুপস্থিত। আমাদের বর্তমান আইনে এই ধারণা ছিল না। তবে বিশ্বের অনেক দেশে এই আইন আছে।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব শফিউল আলম বলেন, আইনে আইনি কাঠামোর মধ্যে ‘ওয়ান ম্যান কোম্পানি’ নিয়ে আসার প্রস্তাব করা হয়েছে। তিনি বলেন, বর্তমান আইনে সর্বোচ্চ ৫০ জন সদস্য নিয়ে একটি লিমিটেড কোম্পানি গঠনের বিধান রয়েছে। তবে এই বিধান ওয়ান ম্যান কোম্পানি গঠনের ক্ষত্রে প্রযোজ্য হবে না। কেবল একজন ব্যক্তি এ ধরনের একটি কোম্পানি গঠন করতে পারবে।

শফিউল আলম বলেন, চলচিত্র ও টেলিভিশনের মতো গনমাধ্যমের আরো বিকাশে মন্ত্রিসভা বাংলাদেশ ফিলম এন্ড টেলিভিশন ইনিস্টিটিউট (সংশোধনী আইন) ২০১৮ এর খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে।

মোহাম্মদ শফিউল আলম বলেন, আগে চলচ্চিত্রের সংজ্ঞা বলা ছিল- সেলুলয়েড, এনালগ, ডিজিটাল বা অন্য যেকোনো মাধ্যমে নির্মিত চলচ্চিত্র। এখন সেখান থেকে ‘এনালগ’শব্দটি বাদ দিয়ে নতুন সংজ্ঞায় বলা হয়েছে, চলচ্চিত্র অর্থ সেলুলয়েট, ডিজিটাল বা অন্য যেকোনো মাধ্যমে নির্মিত চলচ্চিত্র।

তিনি বলেন, ‘বর্তমান আইনে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র ও টেলিভিশন ইনস্টিটিউটের পরিচালনা পর্ষদে কমপক্ষে পাঁচজন এবং সর্বোচ্চ সাতজন বরেণ্য ব্যক্তিকে সরকার মনোনীত করত। সেখানে পরিবর্তন করে সরকার কর্তৃক মনোনীত ইনস্টিটিউটের একজন শিক্ষক, একজন চলচ্চিত্র নির্মাতাসহ কমকক্ষে চারজন এবং সর্বোচ্চ ছয়জন চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট বরেণ্য ব্যক্তির কথা বলা হয়েছে। ফলে এ ইনস্টিটিউটের শিক্ষক প্রতিনিধি নিশ্চিত হবে সঙ্গে চলচ্চিত্র নির্মাতাদের সম্পৃক্ততা থাকবে।’

পরিচালনা পর্ষদে সরকার মনোনীত ‘বিশিষ্ট সাংবাদিক’ শব্দ পরিবর্তন করে ‘গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব’শব্দ সংযোজনের প্রস্তাব করা হয়েছে বলেও জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব।

শফিউল আলম বলেন, ‘পরিচালনা পর্ষদে সরকার মনোনীত সদস্যদের মেয়াদ তিন বছর থাকলেও তা কমিয়ে দুই বছর করার প্রস্তাব করা হয়েছে। অর্থাৎ গভর্নিং বডির মেয়াদ কমিয়ে দুই বছর করা হচ্ছে।’

এছাড়া সরকার মনোনীত ‘বেসরকারি গণমাধ্যমের একজন প্রতিনিধির জায়গায় ‘বেসরকারি’শব্দটি বিলুপ্ত করে ‘সরকার কর্তৃক মনোনীত গণমাধ্যমের একজন প্রতিনিধি’ করা হয়েছে।

‘পরিচালনা পর্ষদের মেয়াদও নতুন খসড়ায় তিন বছরের স্থলে দুই বছর করা হয়েছে,বলেন তিনি।

এদিনের মন্ত্রিসভা ১২ ডিসেম্বরকে ‘জাতীয় তথ্য এবং যোগাযোগ প্রযুক্তি দিবস’র (ন্যাশনাল ইনফরমেশন এন্ড কমিউনিকেশন টেকনোলজি ডে) স্থলে ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ দিবস’ হিসেবে উদযাপনের একটি প্রস্থাবেও সম্মতি প্রদান করে।

বৈঠকের শুরুতে কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী দুইশত বছরের একটি পুরনো ভাসমান ‘চালের হাট’র আলোকচিত্র উপহার দেন। -বাসস

বরিশালের বানরিপাড়ার সন্ধ্যা নদী থেকে কৃষিমন্ত্রী এই ভাসমান হাটের আলোকচিত্রটি সংগ্রহ করেন এবং বলা হয়ে থাকে এটি এই অঞ্চলের বৃহত্তম চালের হাট।

শীর্ষ মিডিয়া