Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

রাত ১১:০৮ ঢাকা, বুধবার  ১৪ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

একনেক বৈঠকে পাঁচটি প্রকল্প অনুমোদন

জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদ (একনেক) আজ ১,৩৫৪ কোটি টাকার পাঁচটি উন্নয়ন প্রকল্প অনুমোদন করেছে।
একনেক চেয়ারপার্সন এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে আজ রাজধানীর শেরে বাংলানগরে একনেক সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত একনেকের সভায় এই অনুমোদন দেয়া হয়।
বৈঠক শেষে পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল সাংবাদিকদের জানান, মোট প্রকল্প ব্যয়ের মধ্যে ১,৩২৫ কোটি টাকা পাওয়া যাবে রাষ্ট্রীয় তহবিল থেকে এবং ২৯ কোটি টাকা পাওয়া যাবে প্রকল্প সহায়তা হিসেবে।
অর্থ পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান ব্রিফিং অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।
ব্রিফিংয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী জানান, চলতি অর্থবছরের জুলাই থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত সময়ে এডিপি বাস্তবায়নের হার দাঁড়িয়েছে ২৮ ভাগ। বিগত অর্থবছরে এই সময়ে এডিপি বাস্তবায়নের হার ছিল ২৫ ভাগ।
তিনি জানান, এ সময়ে প্রায় ২৩,৭৪৫ কোটি টাকা ব্যয় করা হয়েছে। বিগত অর্থবছরের এই সময়ে ব্যয় হয়েছিল ১৮,৮২৫ কোটি টাকা। চলতি অর্থবছরে প্রকল্প বাস্তবায়নের হার শতভাগ হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।
ডিসেম্বর মাসে মূল্যস্ফীতির হার সম্পর্কে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, এই ডিসেম্বরে মূল্যস্ফীতির হার হ্রাস পেয়ে ৬.১১ ভাগ হয়েছে। গত বছরের ডিসেম্বরে এই হার ছিল ৬.২১ ভাগ।
পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘জেলায় পুরনো ও ভাঙ্গাচোরা ব্রিজ-কালভার্টের জায়গায় ৩৪টি পিসি গার্ডার ব্রিজ, ৯টি আরসিসি ব্রিজ ও ১০টি আরসিসি বক্স কালভার্ট নির্মাণ করা হবে।’
সড়ক ও জনপথ বিভাগ ২০১৭ সালের ডিসেম্বর নাগাদ এগুলো নির্মাণ করবে। এতে ব্যয় হবে ১৯০.২৮ কোটি টাকা। সরকার পুরো ব্যয় বহন করবে।
একনেক আরেকটি প্রকল্প অনুমোদন করেছে। প্রকল্পের শিরোনাম হলো ‘ইমপ্রুফমেন্ট কমপোনেন্ট ফর ভালনারেবল গ্রুপ ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রাম।’ এতে ব্যয় হবে ৩৮.৮৯ কোটি টাকা। ২০১৮ সালের জুন মাস নাগাদ নারী ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় এটি বাস্তবায়ন করবে।
এই প্রকল্পের আওতায় সরকার চৌহালী ও বেলকুচি উপজেলার অতিদরিদ্র নারীদের তাদের দারিদ্র্য থেকে বের হয়ে আসতে সহায়তা করবে।
এই দুই উপজেলার ২১ হাজার দুঃস্থ নারীর প্রত্যেককে তাদের জীবনযাত্রা নির্বাহের উপায় খুঁজে বের করতে ১৫ হাজার টাকা করে দেয়া হবে।
একনেক-এর বৈঠকে আরো একটি প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়। এর শিরোনাম ‘ফার্দার ডেভেলপমেন্ট অব ইসলামিক ইউনিভার্সিটি (দ্বিতীয় পর্যায়) ’। এতে ব্যয় হবে ৭০.৫৮ কোটি টাকা। ২০১৯ সালের জুন মাস নাগাদ এই প্রকল্প যৌথভাবে বাস্তবায়ন করবে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন ও ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়।
এই প্রকল্পের আওতায় একটি ৫-তলা ছাত্র হোস্টেল, একটি ৫-তলা ছাত্রী হোস্টেল এবং শিক্ষক ও কর্মকর্তাদের জন্য একটি ১০-তলা কোয়ার্টার নির্মাণ করা হবে।
বৈঠকে অনুমোদিত অন্য প্রকল্পগুলো হলো কুষ্টিয়া শহরে বাইপাস সড়ক নির্মাণ এবং শিক্ষার মানোন্নয়নের জন্য জেলা সদর দফতরগুলোতে সরকারি পোস্ট-গ্রাজুয়েট কলেজগুলোর উন্নয়ন। প্রথমটিতে ব্যয় হবে ৭৮.৩০ কোটি টাকা এবং দ্বিতীয়টিতে ব্যয় হবে ৯৭৬.৫৭ কোটি টাকা।
বৈঠকে মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীরা যোগ দেন। এছাড়া এতে উপস্থিত ছিলেন সংশ্লিষ্ট সচিবরা।