Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

বিকাল ৫:২০ ঢাকা, সোমবার  ১৯শে নভেম্বর ২০১৮ ইং

একনেকে ১৪৪২ কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদিত

১ হাজার ৪৪২ কোটি ৪১ লাখ টাকার ৮টি নতুন ও সংশোধিত প্রকল্প আজ জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) ২৫তম সভায় অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

এর মধ্যে জিওবি ৯৫৩ কোটি ৫২ লাখ টাকা, সংস্থার নিজস্ব তহবিল ২৫ কোটি ৪ লাখ টাকা এবং প্রকল্প সাহায্য ৪শ’ ৬৩ কোটি ৮৫ লাখ টাকা।
শেরেবাংলানগর এনইসি সম্মেলন কক্ষে প্রধানমন্ত্রী ও একনেক চেয়ারপার্সন শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে একনেক-এর এই সভা এ অনুষ্ঠিত হয়।
সভায় একনেক সদস্যবৃন্দ, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীগণ, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, মুখ্য সচিব এবং সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব ও সচিববৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সভায় আলোচ্য প্রকল্পগুলোর মধ্যে -চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সায়েন্সেস বিশ^বিদ্যালয়-এর ২য় ক্যাম্পাস স্থাপন প্রকল্প, নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়ের ভৌত ও একাডেমিক সুবিধা বৃদ্ধিকরণ এবং কালিয়াকৈর হাইটেক পার্কের উন্নয়ন প্রকল্প উল্লেখযোগ্য।

সভায়, আইসিটি সংক্রান্ত আধুনিক হাইটেক শিল্প স্থাপনের জন্য বিশ্বমানের পরিবেশ নিশ্চিতকরণের জন্য অফসাইট এবং অনসাইট অবকাঠামো তৈরির কথা বলা হয়। এজন্য হাইটেক পার্কের অবকাঠামো উন্নয়নে আন্তর্জাতিক মানের ডেভেলপার নিয়োগ করার কথাও জানানো হয়।

সভার শুরুতেই ওয়াশিংটন পোস্ট পত্রিকায় প্রকাশিত সম্প্রতি ফরচুন ম্যাগাজিনের জরিপে বিশে^র শীর্ষ ৫০ নেতার তালিকায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দশম স্থানে নির্বাচিত হওয়ায় পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে পরিকল্পনা মন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীকে ফুলের তোড়া দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।

পরিকল্পনা মন্ত্রী এ সময় বাংলাদেশের অগ্রগতি নিয়ে আরব নিউজ এবং ইউএনডিপি, বিশ^ব্যাংক এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত ফরেন ট্রেড এসোসিয়েশন (এফটিএ)-এর বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতির অবিস্মরণীয় অর্জন বিষয়ক সাম্প্রতিক প্রকাশিত রিপোর্ট তুলে ধরেন।

পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল সভা শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফিংয়ে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ বিশ^ দরবারে একটি সম্মানের আসনে অধিষ্ঠিত হয়েছে। বাংলাদেশ ঘুরে দাঁড়িয়েছে।’

তিনি বলেন, একনেক সভায় প্রধানমন্ত্রী কক্সবাজারে একটি বিশেষায়িত বিশ^বিদ্যালয় এবং সামুদ্রিক মৎস্য সম্পদের গবেষণার স্বার্থে একটি এক্যুরিয়াম করার ব্যাপারে সংশ্লিষ্টদের পদক্ষেপ গ্রহণের নির্দেশ দেন।

পরিকল্পনা মন্ত্রী আরও বলেন, মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখাঁনে বিসিক মুদ্রণ শিল্প নগরী প্রকল্পসহ যে কোন শিল্প পার্ক স্থাপনের সময় বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, বৃষ্টির পানি সংরক্ষণ ব্যবস্থা, প্রকল্প এলাকায় জলাধার নিশ্চিত করাসহ দেশের টেকসই সড়ক-মহাসড়ক নির্মাণের সময় ড্রেনেজ ব্যবস্থা নিশ্চিত করার জন্যও প্রধানমন্ত্রী অনুশাসন প্রদান করেছেন।

একনেক সভায় অনুমোদিত অন্য প্রকল্পসমূহ হচ্ছে- বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশনের খাদ্য ও বিকিরণ জীববিজ্ঞান সুবিধাদির আধুনিকীকরণ, ডেসকো এলাকায় সুপারভাইজরি কন্ট্রোল ও ডাটা একুইজিশন সিস্টেম স্থাপন প্রকল্প, বিসিক মুদ্রণ শিল্পনগরী, সিলেট সুনামগঞ্জ সড়ক উন্নয়ন এবং রুমা-বগালেক-কেওক্রাডাং সড়ক উন্নয়ন ১ম পর্যায় নির্মাণ প্রকল্প।

প্রেস ব্রিফিংয়ে পরিকল্পনা বিভাগের সচিব তারিক উল ইসলাম, আইএমইডি সচিব ফরিদ উদ্দিন আহম্মদ চৌধুরী, পরিসংখ্যান বিভাগের সচিব কানিজ ফাতেমা এবং পরিকল্পনা কমিশনের সদস্যগণ উপস্থতি ছিলেন।