ব্রেকিং নিউজ

দুপুর ১২:৪৬ ঢাকা, রবিবার  ২৩শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

“একটি বড় দলের মদদ থাকায় জঙ্গি গোষ্ঠীর হামলা ঠেকানো যাচ্ছে না”

আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ এমপি বলেছেন, সরকারের সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা থাকার পরও একটি বড় রাজনৈতিক দলের জঙ্গি গোষ্ঠীর প্রতি মদদ থাকায় তাদের হামলা ঠেকানো সম্ভব হচ্ছে না।
তিনি বলেন, বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিধর রাষ্ট্র যুক্তরাষ্ট্র পরিকল্পিত জঙ্গি হামলা যেমন ঠেকাতে পারেনি, তেমন অনেক হত্যাকান্ডেরও কোন সুরাহা করতে পারেনি।
ড. হাছান মাহমুদ আজ দুপুরে রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজম্ম লীগের উদ্যোগে আয়োজিত ৩ নভেম্বর জেলহত্যা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।
তিনি বলেন, গণতান্ত্রিক শক্তির ঐক্যবদ্ধ প্রয়াস ছাড়া পরিকল্পিত জঙ্গি হামলা মোকাবেলা করা সরকারের জন্য অত্যন্ত দুরূহ কাজ।
সংগঠনের সভাপতি এডভোকেট আসাদুজ্জান দুর্জয়ের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ফয়েজ উদ্দিন মিয়া, কৃষক লীগ নেতা আব্দুল হাই কানু ও বঙ্গবন্ধু একাডেমির মহাসচিব হুমায়ুন কবির মিজি।
ড. হাছান মাহমুদ বলেন, দু’বিদেশী নাগরিক হত্যা, শিয়া সম্প্রদায়ের তাজিয়া মিছিলের ওপর হামলা, মুক্তমনা লেখক ও প্রকাশকদের এবং আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের ওপর হামলা একইসূত্রে গাঁথা।
তিনি বলেন, রাষ্ট্রকে অস্থিতিশীল করার হীন প্রয়াস থেকেই এ হামলাগুলো চালানো হয়েছে। পুলিশের ওপর হামলা থেকে এটা পরিষ্কার হয়ে গেছে।
বন ও পরিবেশ বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি হাছান বলেন, দেশের মুক্তবুদ্ধির লেখক ও প্রকাশকদের ওপর হামলা করা আর আমাদের বাঙ্গালি সংস্কৃতির ওপর আঘাত করার মধ্যে কোন পার্থক্য নেই।
এ বিষয়ে তিনি বলেন, লেখক ও প্রকাশকদের ওপর হামলা শুধুমাত্র রাষ্ট্রকে অস্থিতিশীল করার জন্যই করা হয়নি, আমাদের কৃষ্টি ও সংস্কৃতিকে ধ্বংস করার জন্য করা হয়েছে।
তিনি বলেন, মুসলিম লীগের আদর্শ আর বিএনপির আদর্শের মধ্যে কোন পার্থক্য নেই। মুসলিম লীগ নেতা নূরল আমিন ও মোনায়েম খানের সরকার এক সময় যাদের নেতৃত্ব দিতেন বেগম খালেদা জিয়া এখন তাদের নেতৃত্ব দান করছেন।
বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া নতুন সিদ্ধান্ত নিয়ে দেশে ফিরছেন- বিএনপির এমন বক্তব্যের জবাবে ড. হাছান বলেন, চিকিৎসার নামে বেগম খালেদা জিয়া লন্ডনে গিয়ে বিভিন্ন গোষ্ঠীর সাথে শুধু আলোচনাই করেন নি, তাদের মন জয় করারও চেষ্টা করেছেন।
এ বিষয়ে তিনি বলেন, খালেদা জিয়া তার পুত্র তারেক রহমানের মাধ্যমে অনেক সন্ত্রাসী জঙ্গি গোষ্ঠীর সাথে শলাপরামর্শ করেছেন। তাই তার নতুন সিদ্ধান্ত সম্পর্কে দেশের মানুষের আর অজানা নেই।
ড. হাছান বলেন, দেশের রাজনীতিবিদদের কাছে জাতীয় চারনেতার আদর্শ চিরদিন অনুস্মরণীয় ও অনুকরণীয় হয়ে থাকবে। কেননা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর অবর্তমানে চরম নিষ্ঠা ও বিচক্ষণতার মাধ্যমে সশস্ত্র যুদ্ধের মাধ্যমে দেশকে স্বাধীন করতে তারা নেতৃত্ব দিয়েছেন। ক্ষমতার লোভে তারা তাদের আদর্শ থেকে বিচ্যূত না হয়ে মৃত্যুকে আলিঙ্গন করেছেন।