Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

রাত ১:৪৫ ঢাকা, বৃহস্পতিবার  ২২শে নভেম্বর ২০১৮ ইং

এই বাসটিতে পেট্রলবোমা হামলায় ৭ জন পুড়ে কঙ্কাল, দগ্ধ ২৪

Like & Share করে অন্যকে জানার সুযোগ দিতে পারেন। দ্রুত সংবাদ পেতে sheershamedia.com এর Page এ Like দিয়ে অ্যাক্টিভ থাকতে পারেন।

এই যাত্রাই যে জীবনের শেষ যাত্রা হবে তা কোনদিন কল্পনাও করেননি মাফরুহা। আদরের মেয়ে পেট্রোল বোমার আগুনে পুড়ে কংকাল হলেও নিজে বেচে গেছেন লাফ দিয়ে।

তিনি জানালেন, বাসের অধিকাংশ যাত্রী ছিলেন ঘুমিয়ে। যে কারনে আগুন থেকে বাঁচার কোন সুযোগ ছিল না।

কান্না জড়িত কণ্ঠে তিনি জানালেন, ঘুমের মধ্যে কিছু বুঝে ওঠার আগেই সব শেষ হয়ে গেছে।

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে কক্সবাজার থেকে ছেড়ে আসা ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে আইকন পরিবহনের বেচে যাওয়া যাত্রী মাফরুহা এভাবেই বর্ণনা দিলেন দুর্ঘটনার।

মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৩ টার দিকে চৌদ্দগ্রামের মিয়ার বাজার জগমোহনপুর নামক স্থানে এ ঘটনা ঘটে।

মঙ্গলবার ভোররাত সাড়ে তিনটার দিকে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার মিয়াবাজার-সংলগ্ন এলাকায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে আইকন পরিবহনের বাসে পেট্রোল বোমা হামলা চালায় দুর্বৃত্তরা।
এতে বাসের ভেতর পুড়ে কয়লা হয়েছেন সাতজন। এ ঘটনায় দগ্ধ হয়েছেন কমপক্ষে ২৪  জন যাত্রী।

নিহতদের মধ্যে পাঁচ জনের পরিচয় জানা গেছে। তারা হলেন- নরসিংদীর পলাশবাড়ির আসমা আকতার ও তার ছেলে শান্ত ,যশোরের নুরুজ্জামান পাপলু ও তার মেয়ে মাইশা এবং ঢাকার কাপ্তান বাজারের ওযাছিন উদ্দিন।

নিহত সাতজনের লাশ কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রাখা হয়েছে।
পেট্রল বোমায় অগ্নিদগ্ধদের চৌদ্দগ্রাম হাসপাতাল ও কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এর মধ্যে গুরুতর দগ্ধ ৬ জনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিট থেকে জানানো হয়, দগ্ধ হওয়া ছয় ব্যক্তি ভর্তি হয়েছেন। এদের মধ্যে দুজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। বার্ণ ইউনিটে চিকিসাধীন আছেন, কক্সবাজারের মো. হানিফ (৩৫) ও রাশেদুল (২৫), মানিকগঞ্জের মো. ফারুক (২৩) ও মো. জিলক্বদ (২০), ফরিদপুরের মো. আরিফ (২২), নারায়ণগঞ্জের মো. শফিকুল (১৮)।
চৌদ্দগ্রামের মিয়াবাজার হাইওয়ে পুলিশের সার্জেন্ট নাজিম উদ্দিন জানান, পেট্রলবোমার আগুনে বাসটির সব আসন পুড়ে গেছে। যাত্রীরা ঘুমে থাকায় হতাহতের সংখ্যা বেশি হয়েছে।

তিনি আরো জানান, কক্সবাজার থেকে ঢাকাগামী আইকন পরিবহন নামক বাসে দুর্বৃত্তরা পেট্রলবোমা হামলা চালালে এ ঘটনা ঘটে।
গুরুতর আহতদের ৫ জনকে কুমিল্লা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়াও চৌদ্দগ্রাম সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে ১২ জনকে।