ঋতু পরিবর্তনের ফলে এ সময় অনেকে সর্দি-কাশি ও জ্বরে আক্রান্ত হচ্ছেন। আর এ সময় আমাদের তাড়া করছে করোনা ভয়। তবে সর্দি-কাশি হলেও করোনা হয়েছে, এমন মনে করা যাবে না। তাই জ্বর, সর্দি, কাশি হলেই অযথা আতঙ্কিত না হতে বলেছেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা।

চিকিৎসকরা বলছেন, সর্দি-কাশি হলেই ভয় পাবেন না। সর্দি-কাশি হলেই আপনার করোনা হয়েছে এমন নয়। ঋতু পরিবর্তনের ফলে এ সময় অনেকেই সর্দি-কাশির সমস্যায় ভুগছেন। এখন করোনার ভয়ে অনেকে জ্বর, সর্দি-কাশি হলেই ছুটছেন চিকিৎসকের কাছে। আবার অনেকে নিজের ইচ্চামতো ওষুধ সেবন করছেন। আর এতেই বাড়ছে বিপদ।

তবে কিছু বিষয়ে আপনাকে অবশ্যই সচেতন থাকতে হবে। আসুন জেনে নিই গুরুত্বপূর্ণ কিছু বিষয়।

জ্বর কি কাঁপুনি দিয়ে আসে?

যদি এমন হয় যে কাঁপুনি দিয়ে জ্বর আসছে। তবে ম্যালেরিয়ার সম্ভাবনা খুঁজে দেখতে শুরু করবেন চিকিৎসকরা। আবার জ্বরটা ছেড়ে বা কমে গিয়ে দুদিন দিন পর এলেও তা ফিরলে ডেঙ্গুর লক্ষণ রয়েছে কিনা তা দেখেন চিকিৎসকরা।

আর জ্বরের সঙ্গে কি শুকনো কাশি হচ্ছে, নাকি কাশির সঙ্গে ঘন কফও আসছে। শুকনো কাশি হলে করোনা সংক্রমণের সম্ভাবনার কথা ভাববেন ডাক্তাররা। তবে নিশ্চিত হতে পরীক্ষা প্রয়োজন।

চিকিৎসক অরিন্দম বলছেন, কফ সাদা হলে চিকিৎসক বুঝবেন রোগী ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণের শিকার হয়েছেন। তখন সেই সংক্রমণ থেকে বের করে আনতে তাকে অ্যান্টিবায়োটিক দেয়া হবে।

তাই জ্বর, সর্দি, কাশি হলেই অযথা আতঙ্কিত হবেন না। করোনাভাইরাস সংক্রমণের পরীক্ষার জন্য ছোটাছুটি করে লাভ নেই। চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

তথ্যসূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা