Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

দুপুর ২:১৩ ঢাকা, বুধবার  ২১শে নভেম্বর ২০১৮ ইং

উদ্বারকৃত ৫ বস্তায় ছিল প্রায় ৯ কোটি টাকা এবং ৩০ কোটি টাকার সোনা

গত বৃহস্পতিবার রাজধানীর পুরানা পল্টনের মোহাম্মদ আলীর বাসা থেকে উদ্ধার পাঁচ বস্তা দেশি-বিদেশি মুদ্রার গনণা শেষ হয়েছে। প্রায় ২২ ঘণ্টা ধরে শুল্ক গোয়েন্দা বিভাগের ২৫ জন কর্মচারী টাকা-রিয়াল গোনার কাজ শেষ করে। গনণা শেষে মোট ৮ কোটি ৫৫ লাখ ৮০ হাজার টাকা পাওয়া গেছে। এর মধ্যে দেশি মুদ্রা ৫ কোটি ২৫ লাখ ৯০ হাজার এবং সৌদি রিয়াল ৩ কোটি ২৯ লাখ ৯০ হাজার টাকা।

টাকা গোনা শেষে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর এ সব তথ্য জানায়। বৃহস্পতিবার রাত ১২ টার দিকে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে শুল্ক গোয়েন্দা কার্যালয়ে টাকা ও রিয়াল গোনা শুরু হয়। মুদ্রা গোনা শেষ হয় শুক্রবার রাত ১০ টার দিকে। শুল্ক গোয়েন্দা বিভাগের ২৫ জন কর্মচারী টাকা-রিয়াল গোনার কাজ শেষ করে জব্দ তালিকা তৈরি করেন।

গতকাল বৃহস্পতিবার চারটি বস্তার মধ্যে পাওয়া গেছে বিপুল পরিমাণ সৌদি রিয়াল ও ৫২৮টি সোনার বার। শুল্ক গোয়েন্দা ও গোয়েন্দা বিভাগের এই অভিযানে এর সঙ্গে জড়িত ফ্ল্যাট মালিক মোহাম্মদ আলী আটক হন।

এ ঘটনায় মোহাম্মদ আলীর নামে থানায় একটি মামলা করা হয়েছে। শুক্রবার তাঁকে রাজধানীর পল্টন থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।
শুল্ক গোয়েন্দা কর্মকর্তারা জানান, ৫২৮টি সোনার বার বা ৬১ কেজি সোনা তো আছেই, যার মূল্য ৩০ কোটি টাকা।
এই বিপুল পরিমাণ সোনা, রিয়াল আর টাকা গুনতে গিয়ে ঢাকায় শুল্ক গোয়েন্দা অধিদপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ছুটি বাতিল করা হয়েছে।