ব্রেকিং নিউজ

সন্ধ্যা ৬:৫৭ ঢাকা, সোমবার  ১৮ই জুন ২০১৮ ইং

ওবায়দুল কাদের
আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের

ইফতার নিয়েও রাজনীতি করছে ‘ফখরুলরা’ : কাদের

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীররা ইফতার নিয়েও রাজনীতি করে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, ইফতার সামনে রেখে রাজনৈতিক বক্তব্য বিএনপির জন্য রাজনৈতিক দেওলিয়াপনা ছাড়া আর কিছু না। রাজনীতিতে তারা এত নিচে নেমে গেছে যে, ইফতার পার্টিতে এসে রাজনীতি করছে এবং বিদেশিদের কাছে অশ্রাব্য ভাষায় নালিশ করছে এবং যেটা রাজনৈতিক ভাষা নয় সেটাও বলছে। আমরা সেটা করি না, করবোও না।

সোমবার রাজধানীর কাকরাইলের ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউট মিলনায়তনে এক ইফতার পার্টি থেকে বেরিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইফতারের সময় রাজনৈতিক বক্তব্য রাখেন না, এমন কি আমিও রাখি না। কিন্তু বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীররা ইফতার নিয়েও রাজনীতি করে। ইফতারের সময় তারা রাজনৈতিক বিদ্বেষ ছড়ায়। প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ করে। তারা দেশের মানুষের কাছে তো নালিশ করেই, ইফতার সামনে রেখে বিদেশিদের কাছেও নালিশ করে।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, আমরাও জেলখানায় ছিলাম। খালেদা জিয়া যেই জায়গাটায় আছেন, সেটা আমরা দেখেছি। সেখানে যেভাবে রুমটাকে সাজানো হয়েছে। খুব ভালোভাবে, ভালো জায়গায় আছেন, যেখানে আমরাও ছিলাম না।

তিনি বলেন, এখন তারা বিরোধী দলে আছেন, বিএনপির নেতারা এ নিয়ে বলবেনই। জেল কোর্ট অনুযায়ী খালেদা জিয়ার যা যা প্রাপ্য সব কিছু করা হচ্ছে এবং যদি আরও কিছু করার দরকার হয় সেটাও করা হবে। চিকিৎসার জন্য আরও কিছু করার দরকার হলে সরকার করবে, তার থাকা খাওয়ার জন্য সরকার করেছে।

সেতুমন্ত্রী বলেন, কারাগারে ব্যক্তিগত গৃহপরিচালিকা রাখার কোনো সুযোগ নেই। সেটাও এলাউ করা হয়েছে। তার জন্য ব্যক্তিগত চিকিৎসক রাখার কোন নিয়ম নেই, এই নিয়মও খালেদা জিয়ার জন্য ভাঙ্গা হয়েছে। তাকে জেলে দিয়েছেন আদালত, মুক্তি দিতে পারেন আদালত। কিন্তু মানুষ হিসেবে মানবিকতার দিক দিয়ে, তারও বয়স হয়েছে, তাকে যথাযথ চিকিৎসা দেওয়া, তার সঙ্গে মানবিক আচরণ করা; এতে সরকারের কোনো গাফলতি নেই।

বর্তমান সরকারের অধিনে নির্বাচন করা বিএনপির জন্য আত্মঘাতী হবে তাই বিএনপি এই সরকারে অধিনে নির্বাচনে যাবে না দলটির নেতাদের এমন বক্তব্য প্রসঙ্গে এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, খুব ভালো কথা, তারা গতবার নির্বাচনে যায়নি, নির্বাচনের বৈধতার কোনো সংকট হয়নি। এবারো হবে না। আর আত্মঘাতীর বিষয়টা তাদের মূল্যায়নের ব্যাপার, তাদের জন্য আত্মঘাতী কি না। তবে তাদের জন্য নির্বাচন আটকে থাকবে না। নির্বাচন নির্বাচনের পথে চলবে, গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া অব্যাহত থাকবে। সংবিধান অব্যহত থাকবে। এর আগে ঢাকাস্থ কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা সমিতির ইফতার অনুষ্ঠানে সকলের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন মন্ত্রী।