ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৮:৫৬ ঢাকা, রবিবার  ২৩শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

ইন্টারভিউ মুভির মুক্তির উপায় খুঁজছে সনি

উত্তর কোরিয়ার নেতাকে নিয়ে নির্মিত কমেডি মুভি দ্য ইন্টারভিউ মুক্তি দেয়ার ভিন্ন উপায় খুঁজছে সনি পিকচার্স। এর আগে সাইবার হামলার কারণে মুভিটি মুক্তি দেয়া স্থগিত রেখেছিল বিশ্বের নামকরা এ প্রতিষ্ঠানটি। সনি পিকচার্সে সাইবার হামলার জন্য উত্তর কোরিয়াকে দায়ী করা হচ্ছে।
সনি পিকচার্স বলেছে, তারা কেবল খ্রীস্টানদের ধর্মীয় উৎসব বড়দিনে মুভিটি মুক্তি দেয়া বাতিল করেছে। কোম্পানি আরো বলেছে, তার ভিন্ন প্লাটফর্মে মুভিটি মুক্তি দেয়ার বিকল্প খুঁজছে।
এদিকে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা মুভিটির মুক্তি না দেয়াকে ‘বিরাট ভুল’ বলে উল্লেখ করেছেন। তিনি বলেন, ‘কিছু একনায়ক কিছুস্থানে যুক্তরাষ্ট্রের ওপর সেন্সরশিপ আরোপের চেষ্টা করবে আর আমরা তা মেনে নেব, এটা হবে না।’ তিনি সাইবার হামলার ‘দাঁতভাঙা জবাব’ দেয়ার অঙ্গীকার করেন।
এফবিআই বলেছে, সাইবার হামলার জন্য উ. কোরিয়া দায়ী। তবে পিয়ংইয়ং তা অস্বীকার করেছে। মুভিতে উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উনের ওপর আততায়ীর হামলার কাল্পনিক কাহিনী রয়েছে।
ওবামার বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে সনি পিকচার্সের প্রধান নির্বাহী ও চেযারম্যান মাইকেল লিন্টন বলেন, মুভিটির মুক্তি দেয়া স্থগিত রেখে কোন ভুল হয়নি। তিনি বলেন, ‘আমরা গর্তে পড়ে যাইনি। আমরা মুভিটি মুক্তি দিতে সচেষ্ট রয়েছি।’
সনির এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, দেশের বেশিরভাগ থিয়েটারের মালিক মুভিটি প্রদর্শন করতে না চাওয়ার কারণে বড়দিনে মুভিটি মুক্তি দেয়া হচ্ছে না। বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে, ‘থিয়েটার ছাড়া আমরা মুভিটি মুক্তি দিতে পারি না। আমাদের কোন উপায় নেই। তবে দর্শকদেরকে আমরা মুভিটি দেখার সুযোগ করে দিতে পারবো বলে আমরা আশা করছি।’
হ্যাকাররা ইতোমধ্যে সনির কম্পিউটারে রক্ষিত স্পর্শকাতর তথ্য প্রকাশ করেছে। তারা পরে মুভিটি দেখা নিয়ে সরকারি পরিকল্পনাকারী সদস্যদের হুঁশিয়ার করে দিয়েছে। ২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বরের সন্ত্রাসী হামলার কথা উল্লেখ করে তারা বলেন, মুভিটি প্রদর্শন করা হলে সারাবিশ্ব সম্পূর্ণ আতংকগ্রস্ত হয়ে পড়বে।
উত্তর কোরিয়া হ্যাকিংয়ে জড়িত থাকার অভিযোগ নাকচ করে দিয়েছে। তবে সাইবার হামলার ঘটনাকে ‘সঠিক কাজ’ বলে উল্লেখ করেছে।
দেশের শীর্ষ সামরিক বাহিনীর উদ্ধৃতি দিয়ে সরকারি সংবাদ সংস্থা কেসিএনএ’র এক খবরে বলা হয়েছে, হামলার পিছনে পিয়ংইয়ংয়ের জড়িত থাকার খবর ‘ডাহা গুজব’।