Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

রাত ১১:৪০ ঢাকা, বুধবার  ২১শে নভেম্বর ২০১৮ ইং

ইনুরাই শেখ মুজিবের সরকারকে উৎখাতে সশস্ত্র সংগ্রাম করেছে: বিএনপি

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুব রহমান হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় জাসদ নেতা হাসানুল হক ইনু ও তাদের গণবাহিনীর ভূমিকা জাতির সামনে পরিষ্কারের দাবি জানিয়েছে বিএনপি।
দলটির মুখপাত্র ও আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. আসাদুজ্জামান রিপন বলেন, আওয়ামী লীগ ও শেখ হাসিনার জন্য এটা খুবই দুর্ভাগ্যজনক যে তিনি তার মন্ত্রিসভায় এমন সব লোককে নিয়োগ দিয়েছেন যারা তার পিতা শেখ মুজিবের চামড়া দিয়ে ডুগডুগি বাজাতে চেয়েছিল। এই ইনুরাই শেখ মুজিবের সরকারকে উৎখাত করতে সশস্ত্র সংগ্রাম করেছে। ১৯৭২ থেকে ১৯৭৫ পর্যন্ত দেশের পরিস্থিতি অস্থিতিশীল করার পেছনে জাসদ ও গণবাহিনী দায়ী।
সোমবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি।
রিপন বলেন, মন্ত্রিসভায় বেশ কিছু পরগাছা মন্ত্রী আছেন। যারা নিজেদের মন্ত্রিত্ব বাঁচাতে অপ্রাসঙ্গিকভাবে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে ছোট ও হেয় করে বক্তব্য দেন।
জাসদ নেতা ইনুকে উদ্দেশ করে রিপন বলেন, জাতির জন্য খুবই দুর্ভাগ্য যে, আজ তাদের কাছ থেকে গণতন্ত্র শিখতে হচ্ছে। যাদের রাজনীতি শুরু হয়েছে সন্ত্রাস ও হত্যাকাণ্ডের মধ্যদিয়ে। তাদের মুখে গণতন্ত্রের ছবক জাতি শুনতে চায় না।
রিপন বলেন, আমাদের নেত্রী বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া দু’দিন আগে দেশের অবরুদ্ধ রাজনীতির বন্ধ কপাট খুলে দিতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। নিজেকে প্রচারে রাখতে ও প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণের জন্যই ইনুর মত পরগাছা মন্ত্রীরা এসব কথা বলেন।
ইনুর মতো নেতারা ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য হওয়ারও যোগ্যতা রাখে না বলে দাবি করেন তিনি।
সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা মেজর জেনারেল (অব.) মাহমুদুল হাসান, এএসএম আব্দুল হালিম, বিএনপির আইন বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার জিয়াউর রহমান খান, কেন্দ্রীয় নেতা আব্দুল লতিফ জনি, শামীমুর রহমান শামীম, আব্দুস সালাম আজাদ, নুরুল কবির শাহীন, শাহানা আক্তার শানু প্রমুখ।
উল্লেখ্য, রোববার ধানমণ্ডি ৩২ নম্বরে শোক দিবসের আলোচনায় আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ সেলিমও ১৯৭২ থেকে ১৯৭৫ পর্যন্ত রাজনৈতিক অঙ্গনে জাসদের নেতাদের কর্মকাণ্ড নিয়ে সমালোচনা করেন। জাসদ বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পথ পরিষ্কার করে দিয়েছিল বলে দাবি করেন তিনি।