Press "Enter" to skip to content

ককটেল বানাতে গিয়ে আঙ্গুল গেল রাজনৈতিক কর্মীর

Like & Share করে অন্যকে জানার সুযোগ দিতে পারেন। দ্রুত সংবাদ পেতে sheershamedia.com এর Page এ  Like দিয়ে অ্যাক্টিভ থাকতে পারেন।

 

বগুড়ায় আওয়ামী লীগ নেতার বাড়িতে ককটেল বানাতে গিয়ে বিস্ফোরণে এক যুবকের ডান হাতের তিন আঙ্গুল বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। পরে তাকে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করে গোপনে চিকিৎসা দেয়ার সময় পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। মঙ্গলবার দুপুরে বগুড়া সদরের গোকুল ইউনয়নের বড়ধওয়াকোলা নামাপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

গুরুতর জখম ওই যুবকের নাম সোহাগ (২০)। সে এলাকার আব্দুল গনির ছোট ভাই তথা শফিকুল ইসলামের ছেলে। স্থানীয়রা জানান, সোহাগ ওয়ার্ড আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক। তবে পুলিশ বলছে সোহাগ ছাত্রদল কর্মী।
স্থানীয়রা জানায়, গোকুল ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল গনির বাড়িতে কয়েকজন যুবক ককটেল তৈরি করছিলেন। হঠাৎ বিকট শব্দে বিস্ফোরণ হলে গ্রামের লোকজন ওই বাড়িতে ছুটে যায়। তারা সেখানে গিয়ে দেখতে পায় আব্দুল গনির ছোট ভাই তথা শফিকুল ইসলামের ছেলে সোহাগের ডান হাত গুরুতর জখম হয়েছে। পরে তাকে ঠেঙ্গামারা রফাত উল্লাহ কমিউনিটি হাসপাতালে গোপনে চিকিৎসা দেয়া হয়। হাসপাতালে তার হাত ব্যান্ডেজ করে সার্জারি ওয়ার্ডের ১২ নং বেডে ভর্তি করা হয়।
হাসপাতাল সূত্র জানায়, বিস্ফোরণে সোহাগের ডান হাতের ৩টি আঙ্গুল বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। ঘটনাটি পুলিশকে জানানো হলে বিকেল সাড়ে ৫টায় সদর থানা পুলিশের একটি দল রফাত উল্লাহ কমিউনিটি হাসপাতাল থেকে সোহাগকে গ্রেপ্তার করে। পরে পুলিশ হেফাজতে তাকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
বগুড়া সদর থানা জানায়, ককটেল বিস্ফোরণে আহত সোহাগকে ঠেঙ্গামারা রফাত উল্লাহ কমিউনিটি হাসপাতাল থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

শেয়ার অপশন:
Don`t copy text!