ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৯:৪৯ ঢাকা, শুক্রবার  ২১শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

“আ. লীগের রক্ষী বাহিনীর ধ্যান-ধারণা ভুলে যায়নি”

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্রিগ্রেডিয়ার জেনারেল (অব.) আ স ম হান্নান শাহ্ বলেছেন, আওয়ামী লীগের রক্ষী বাহিনীর ধ্যান-ধারণা ভুলে যায়নি। রক্ষী বাহিনীর অত্যাচারে গ্রামগঞ্জের মানুষ থাকতে পারেনি। এখন সরকারের সন্ত্রাসী বাহিনীর অত্যাচারে মানুষ  অতিষ্ঠ। প্রতিদিন ছাত্রলীগ, যুবলীগ, শ্রমিক লীগ সন্ত্রাস করছে। এমপি সাহেব গুলি করে শিশু হত্যা করছে, এমপির ছেলে গাড়ি চাপা দিয়ে মানুষ মারছে, এক মন্ত্রী সচিবালয়ের ভিতরে তার অধিনস্ত কর্মকর্তার কক্ষে ভাংচুর করে তালা লাগিয়ে দিচ্ছে। এগুলো কি সন্ত্রাসী কর্মকান্ড নয়?

একটি গোয়েন্দা সংস্থার সদর দপ্তরের কাছে পুলিশের ওপর হামলা হয়েছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে বিরোধী দলের বিরুদ্ধে লাগিয়ে সন্ত্রাসীদের প্রশ্রয় দিচ্ছে সরকার। আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তার করা হচ্ছে না। তাই আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেই।

বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবে সিপাহী বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে জাতীয়তাবাদী জিয়া সমাজকল্যাণ পরিষদ  আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন।
হান্নান শাহ বলেন,  নিরাপত্তা বাহিনী বিরোধী দলীয় নেতা-কর্মীদের দমনে ব্যস্ত বলেই দেশে কারো জীবনের নিরাপত্তা নেই। সরকারি দল সন্ত্রাসীদের আড্ডা খানায় পরিণত হয়েছে। আর নিরাপত্তা বাহিনী বিরোধী দলের নেতা-কর্মীদের দমনে ব্যস্ত।
তিনি বলেন, বিরোধী দলীয় নেতা-কর্মীদের গ্রেপ্তার করা সরকারের রুটিন ওয়ার্কে পরিণত হয়েছে। সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তার না করে প্রতিদিন কম-বেশি এক হাজার জন বিরোধী দলীয় কর্মীদের গ্রেপ্তার করছে সরকার। আট-দশ জন বিএনপি কর্মী একসঙ্গে থাকলেই নাশকতার পরিকল্পনা মামলায় গ্রেপ্তার করা হয়।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি এম গিয়াস উদ্দিন খোকনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান সৈয়দ ইব্রাহিম বীর প্রতীক উপস্থিত ছিলেন।