Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

সন্ধ্যা ৭:৩১ ঢাকা, বুধবার  ১৪ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

আ.লীগের দু’ গ্রুপের সংঘর্ষে মোহন নিহত

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে আনন্দ মোহন ঘোষ নামে একজন নিহত হয়েছে। এছাড়া আহত হয়েছে কমপক্ষে ৮ নেতাকর্মী। বুধবার রাত সাড়ে আটটার দিকে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। সংঘর্ষে ৯ মোটরসাইকেল, একটি মাইক্রো ও অর্ধশত চেয়ার ভাংচুর করা হয়।

এর আগে বিকেলে কালীগঞ্জ আওয়ামী লীগের উপজেলা কমিটি গঠনের লক্ষে কালীগঞ্জ পৌর অডিটরিয়ামে স্থানীয় উপজেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে বর্ধিত সভা শুরু হয়।

অনুষ্ঠান শুরুর কিছুক্ষণ পর আওয়ামী লীগের অপর গ্রুপের সদস্যরা লাঠি ও দা নিয়ে হামলা করে। তাদের হামলায় উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা ইসরাইল হোসেন, আনন্দ মোহন ঘোষ, পৌরসভার প্যানেল মেয়র রেজাউল ইসলামসহ কমপক্ষে ৮ জন আহত হয়।

এরমধ্যে উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা আনন্দ মোহন ঘোষকে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি

কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি জাহাঙ্গীর সিদ্দিকি ঠান্ডু জানান, বর্তমান সাংসদ ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুল আজিম আনারকে বাদ রেখে বর্ধিত সভা আয়োজন করে। ফলে বিক্ষুদ্ধ নেতাকর্মীরা সভায় হামলা করে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য আব্দুল মান্নান জানান, উপজেলা আওয়ামী লীগের কমিটি গঠন নিয়ে সম্প্রতি জেলা নেতৃবৃন্দ আমাকে আহবায়ক করে একটি কমিটি গঠন করে। নিয়মানুযায়ী বুধবার কালীগঞ্জ পৌর অডিটরিয়ামে বর্ধিত সভার আয়োজন করা হয়। কিন্তু সভা শুরু হওয়ার কিছুক্ষণ পর কিছু লোকজন লাঠিসোটা নিয়ে হামলা করে এবং গাড়ি মোটরসাইকেল ও সভার চেয়ার ভাঙ্গচুর করে।