Press "Enter" to skip to content

আশুরায় রক্তাক্ত মিছিলসহ কিছু বিষয় নিষিদ্ধ

পবিত্র আশুরা উপলক্ষে রক্তাক্ত তাজিয়া মিছিল নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এছাড়া মিছিলে আগুন, তরবারি, ছোরা ও আতশবাজি ব্যবহার করা যাবে না।

শনিবার বেলা ১১টার দিকে রাজধানীর লালবাগের হোসনি দালান ইমামবাড়ায় পবিত্র আশুরা উপলক্ষে নিরাপত্তাব্যবস্থা পরিদর্শনকালে এ কথা বলেন ডিএমপি কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া।

তিনি বলেন, যারা এ ইমামবাড়াতে শ্রদ্ধা নিবেদন করতে বা মিছিলে যোগ দিতে আসবেন, তাদের আর্চওয়েসহ প্রয়োজনবোধে বিভিন্নভাবে তল্লাশি করা হবে। তল্লাশির পরে তারা ভেতরে প্রবেশ করতে পারবেন। প্রতিটি অনুষ্ঠানের চারপাশে স্পেশাল ব্র্যাঞ্চ (এসবি) এবং গোয়েন্দা নজরদারি থাকবে।

ডিএমপি কমিশনার আরও বলেন, অনুষ্ঠানের আগে ডগ স্কোয়াড দিয়ে পুরো এলাকা সুইপিং করা হবে। অনুষ্ঠানগুলো মনিটর করবে পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) কাউন্টার টেররিজম ইউনিট। এ ছাড়া বোমা নিষ্ক্রিয়করণ দল ও সোয়াত টিম প্রস্তুত থাকবে।

১০ সেপ্টেম্বর আশুরা ‍উপলক্ষে হোসনি দালানসহ রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় তাজিয়া মিছিল বের হবে। নিরাপত্তার স্বার্থে ১২ ফুটের বেশি বড় নিশান মিছিলে ব্যবহার করা যাবে না। ইমামবাড়া কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

এ ছাড়া পাঞ্জা মেলানো, শক্তির ব্যবহার নিষিদ্ধ করা হয়েছে। উচ্চ স্বরে গান বাজানো বা সাউন্ড সিস্টেম ব্যবহার করা যাবে না।

২০১৫ সালের ২৩ অক্টোবর রাতে পবিত্র আশুরা উপলক্ষে তাজিয়া মিছিলের প্রস্তুতিকালে হোসনি দালানে জেএমবির সদস্যরা বোমা হামলা চালায়। এতে এক কিশোরসহ দুজন নিহত ও শতাধিক ব্যক্তি আহত হন।

এ সম্পর্কে জানতে চাইলে আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, এ মামলার চার্জশিট দেয়া হয়েছে। আদালত যখন বলবেন, তখন মামলার আসামিদের হাজির করা হবে।

শেয়ার অপশন: