Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

রাত ১১:১৬ ঢাকা, বুধবার  ১৪ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

ডোনাল্ড ট্রাম্প
প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প

আমেরিকার প্রেসিডেন্ট হিসেবে ট্রাম্পের শপথ

বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের ৪৫তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিয়েছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

স্থানীয় সময় শুক্রবার দুপুর ১২টায় (বাংলাদেশ সময় রাত ১১টায়) মার্কিন পার্লামেন্ট কংগ্রেসের ক্যাপিটল ভবনে প্রধান বিচারপতি জন রবার্টস ট্রাম্পকে শপথবাক্য পাঠ করান।

শপথ অনুষ্ঠানের সময় ৭০ বছর বয়সী ট্রাম্পের হাতে ছিল আব্রাহাম লিংকনের স্মৃতিধন্য বাইবেল। শপথে তিনি দেশের সংবিধানকে সমুন্নত রাখার অঙ্গীকার করেন।

ট্রাম্পের ঠিক আগে ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেন মাইক পেন্স। বিচারপতি ক্লেরেন্স টমাস তার শপথ পড়ান। এ সময় মাইক পেন্সের হাতে যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট রোনাল্ড রিগানের বাইবেল হাতে ছিল।

শপথ নেয়ার পর একটি উদ্বোধনী ভাষণ দেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। এরপর ট্রাম্প ও মাইক পেন্স পেনসিলভানিয়া অ্যাভেনিউয়ে প্যারেডে অংশ নেন।

আমন্ত্রণ পাওয়া সত্ত্বেও ডেমোক্রেটিক দলের আইনপ্রণেতাদের অন্তত ৬০ জন সদস্য, বহু রাজনীতিবিদ ও বিভিন্ন ক্ষেত্রের তারকাসহ অনেক বিশিষ্টজন ওই অনুষ্ঠান বর্জন করেন।

তবে শপথ অনুষ্ঠানে যোগ দেন হিলারি ক্লিনটন এবং তার স্বামী ও সাবেক প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটন।

ডেমোক্রেট প্রার্থী হিসেবে হিলারি নির্বাচনে ট্রাম্পের প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন। অভিষেক অনুষ্ঠানে এই ক্লিনটন দম্পতি ছাড়াও উপস্থিত হয়েছেন, সাবেক প্রেসিডেন্ট জিমি কার্টার, জর্জ ডব্লিউ বুশসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিরা।

অভিষেক অনুষ্ঠান নির্বিঘ্ন করতে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হলেও ক্যাপিটাল ভবনের বাইরে নজিরবিহীন বিক্ষোভ ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। খবর সিএনএন, এএফপি ও রয়টার্সের।

শপথের মধ্য দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার আট বছরের শাসনকাল শেষে শ্বেতাঙ্গ আধিপত্যের স্বপ্ন দেখানো ট্রাম্পের যুগ শুরু হল।

কোনো ধরনের রাজনৈতিক ও সামরিক অভিজ্ঞতাবিহীন ব্যবসায়ী ট্রাম্প আগামী চার বছর বিশ্বের একক পরাশক্তি যুক্তরাষ্ট্রের কমান্ডার ইন চিফ থাকবেন।

এই ধনকুবেরের নীতিপদ্ধতি নিয়ে ইতিমধ্যে তৈরি হয়েছে নানা বিতর্ক। সব সমালোচনা-বিতর্ক-বিক্ষোভ সত্ত্বেও প্রেসিডেন্ট হিসেবে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে বরণ করতে ওয়াশিংটন ডিসিতে আড়ম্বরপূর্ণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

শুক্রবার সকাল সাড়ে ৮টায় হোয়াইট হাউসের কাছে সেইন্ট জনস এপিসকোপাল চার্চে সকালের প্রার্থনায় অংশ নিয়ে দিন শুরু করেন ট্রাম্প। এরপর তিনি ও তার স্ত্রী মেলানিয়া যান হোয়াইট হাউসে, বিদায়ী প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ও বিদায়ী ফার্স্টলেডি মিশেলের সঙ্গে কফি খান।

এরপর মোটর শোভাযাত্রা করে নতুন প্রেসিডেন্ট ও ফার্স্টলেডি ক্যাপিটলে আসেন। ওবামা ও মিশেল তাদের সঙ্গ দেন। পরে ওবামা-দম্পতি হোয়াইট হাউস ত্যাগ করেন।

ক্যাপিটল ভবনের পশ্চিম ভাগে নতুন প্রেসিডেন্টের শপথ অনুষ্ঠিত হয়। নতুন প্রেসিডেন্ট ও ভাইস প্রেসিডেন্টের পরিবারের সদস্য, ঘনিষ্ঠ বন্ধু, রাজনীতিবিদ, কংগ্রেসের সদস্য ও দলের শীর্ষ নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ৯টায় সুরের মূর্ছনায় শুরু হয় অভিষেকের আনুষ্ঠানিকতা।

ট্রাম্পের শপথ অনুষ্ঠান ঘিরে প্রায় ৯ লাখ মানুষ উপস্থিত হয়েছিলেন। এই সংখ্যা বারাক ওবামার প্রথমবার অভিষেকে অংশগ্রহণকারীর অর্ধেক। এর মধ্যে দুই লাখের বেশি ছিলেন ট্রাম্পবিরোধী বিক্ষোভকারী।