ব্রেকিং নিউজ

রাত ৮:৪১ ঢাকা, শনিবার  ২২শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

সজীব ওয়াজেদ জয়
প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়,ফাইল ফটো

আমি বিচার চাই, মাহফুজ আনামকে আটক ও রাষ্ট্রদ্রোহিতার বিচার হোক: জয়

মিথ্যা দুর্নীতির গল্প ছাপানো দায়ে মাহফুজ আনামকে আটক ও তার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার বিচারের দাবি জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য-প্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক অ্যাকাউন্টে বৃহস্পতিবার দেওয়া স্ট্যাটাসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পুত্র সজীব ওয়াজেদ জয় এ কথা জানান।
সজীব ওয়াজেদ জয় লেখেন, ‘মাহফুজ আনাম, দ্য ডেইলি স্টার সম্পাদক, স্বীকার করেছেন যে, তিনি আমার মা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি অপবাদ আরোপ করতেই তার বিরুদ্ধে মিথ্যা দুর্নীতির গল্প ছাপিয়েছিলেন। তিনি সামরিক স্বৈরশাসনের সমর্থনে আমার মাকে রাজনীতি থেকে সরিয়ে দিতে এই কাজ করেছিলেন। একটি প্রধান সংবাদপত্রের সম্পাদক সামরিক বিদ্রোহে উস্কানি দিতে যে মিথ্যা সাজানো প্রচারণা চালায় তা রাষ্ট্রদ্রোহিতা।

নিম্নে ফেসবুক স্ট্যাটাসটি হুবহু দেয়া হলঃ

16 hrs ·

Mahfuz Anam, Editor of The Daily Star, has admitted he published false corruptions stories against my mother Prime Minister Sheikh Hasina to defame her. He did this in support of a military dictatorship in an attempt to remove my mother from politics.

http://bdnews24.com/…/daily-star-editor-mahfuz-anam-admits-…

The editor of a major newspaper running a false smear campaign to assist in a military coup is treason.

He is constantly writing against politicians as being unethical and corrupt. By his own admission he is completely unethical and a liar. He certainly has no right to remain a journalist, let alone an editor. His activities went beyond just being corrupt. They were unpatriotic and anti-Bangladesh.

On a personal note, his false stories led to my mother’s arrest and spending 11 months in jail. I demand justice. I want Mahfuz Anam behind bars and on trial for treason.

মাহফুজ আনাম, দ্যা ডেইলি স্টার সম্পাদক, স্বীকার করেছেন যে তিনি আমার মা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি অপবাদ আরোপ করতেই তার বিরুদ্ধে মিথ্যা দুর্নীতির গল্প ছাপিয়েছিলেন। তিনি সামরিক স্বৈরশাসনের সমর্থনে আমার মাকে রাজনীতি থেকে সরিয়ে দিতে এই কাজ করেছিলেন।

http://bangla.bdnews24.com/bangladesh/article1099667.bdnews

একটি প্রধান সংবাদপত্রের সম্পাদক সামরিক বিদ্রোহে উস্কানি দিতে যে মিথ্যা সাজানো প্রচারণা চালায় তা রাষ্ট্রদ্রোহিতা।

তিনি অব্যাহতভাবে রাজনীতিকদের বিরুদ্ধে তাদের অনৈতিকতা এবং দুর্নীতিগ্রস্থ হবার কথা লিখেন। তার নিজের স্বীকারোক্তি মতে তিনি নিজেই পুরোপুরি অনৈতিক এবং একজন মিথ্যাবাদী। তার অবশ্যই একজন সাংবাদিক হিসেবে থাকার কোন অধিকার নাই, সম্পাদক তো অনেক দূরের বিষয়। তার কার্যক্রম দুর্নীতিকেও ছাড়িয়ে গিয়েছে; যা দেশপ্রেমহীন এবং বাংলাদেশ বিরোধী।

আমার ব্যক্তিগত মত, তার মিথ্যা গল্পের উস্কানি আমার মাকে গ্রেফতার করিয়েছে এবং ১১ মাস তিনি জেলে কাটিয়েছেন। আমি বিচার চাই। আমি চাই মাহফুজ আনাম আটক হোক এবং তার রাষ্ট্রদ্রোহিতার বিচার হোক।