ব্রেকিং নিউজ

সন্ধ্যা ৭:০৭ ঢাকা, বৃহস্পতিবার  ১৮ই অক্টোবর ২০১৮ ইং

সজীব ওয়াজেদ জয়
প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়, ফাইল ফটো

আমার বিদেশি পাসপোর্ট নেই : জয়

প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা শেখ হাসিনার ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয় বলেছেন, তার কোনো বিদেশি পাসপোর্ট নেই।

নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পাতায় জয় লিখেছেন- সবার অবগতির জন্য জানিয়ে রাখি, আমার কোনো বিদেশি পাসপোর্ট নেই। যুক্তরাষ্ট্রে আমার স্থায়ীভাবে বসবাসের অনুমতি আছে। গর্বের সঙ্গে আমার সবুজ বাংলাদেশি পাসপোর্ট দিয়েই আমি যাতায়াত করি।

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের পাসপোর্ট বিতর্ক নিয়ে আলোচনার মধ্যেই জয় নিজের পাসপোর্ট নিয়ে এসব তথ্য জানালেন। খবর বিবিসি বাংলার।

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমকে উদ্ধৃত করে রোববার বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে বলা হয়েছে, তারেক রহমান বাংলাদেশের পাসপোর্ট হস্তান্তর করে তার নাগরিকত্ব বর্জন করেছেন।

এর পর শুরু হয় তীব্র বিতর্ক। তারেক রহমানের নাগরিকত্ব বর্জন নিয়ে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বক্তব্য প্রত্যাখ্যান করে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রিজভী আহমেদ।

এর পর সোমবার রাতে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম তার বাসায় পাল্টা এক সংবাদ সম্মেলনে দাবি করেন, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান যুক্তরাজ্যের স্বরাষ্ট্র দফতরের কাছে তার পাসপোর্ট হস্তান্তর করেছেন।

শাহরিয়ার আলম প্রশ্ন তোলেন, এর অর্থ কী দাঁড়ায়? … আমি মনে করি এটি হচ্ছে নাগরিকত্বকে অস্বীকার করা।

এ নিয়ে বিতর্ক যখন তুঙ্গে, তখন নিজের ফেসবুক পেজে সজীব ওয়াজেদ বিএনপির কড়া সমালোচনা করেছেন।

সজীব ওয়াজেদ মন্তব্য করেন, বিএনপির কোনো কথা বিশ্বাসযোগ্য নয়।

এদিকে বিএনপির আইনবিষয়ক সম্পাদক এবং তারেক রহমানের আইনজীবী কায়সার কামাল বলেন, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বক্তব্য বানোয়াট এবং রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত।

এ নিয়ে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমকে লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়েছে তারেক রহমানের আইনজীবীর পক্ষ থেকে।

লিগ্যাল নোটিশ পাওয়ার কয়েক ঘণ্টা পরেই সংবাদ সম্মেলন করেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী। তিনি বলেন, বিষয়টি আইনগতভাবে মোকাবেলার জন্য তিনি প্রস্তুত।