Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

রাত ১০:৪৪ ঢাকা, শুক্রবার  ১৬ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

এরশাদ
জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদ, ফাইল ফটো

‘আমরা শান্তির বৃষ্টিতে ভিজতে চাই’

জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান এইচএম এরশাদ বলেছেন, সরকার জনগণের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হয়েছে। দেশের মানুষ হত্যার শিকার হচ্ছেন, বিদেশিদের গলা কেটে হত্যা করা হচ্ছে। সাধারণ মানুষ আজ নিরাপত্তাহীনতায়, সারাদেশ রক্তে ভাসছে। এর চেয়ে লজ্জার কী আছে! আমরা কোথায় যাচ্ছি, এর শেষ কোথায়! রক্তে নয়, আমরা শান্তির বৃষ্টিতে ভিজতে চাই। রক্তে ভেজা নয়-শান্তির বৃষ্টির দেশ চাই।

শনিবার রাজধানীর কাকরাইলে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ জাপা আয়োজিত ‘সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াও একসাথে’ শীর্ষক এক প্রতিবাদ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ রুখতে জাতীয় ঐক্য গড়ার আহ্বান জানান তিনি।

এরশাদ বলেন, এতদিন সস্ত্রাসী কর্মকাণ্ড একটি দলের মাঝে সীমাবদ্ধ ছিল। এখন এর পরিধি বেড়েছে। এমন দেশ আমরা চাইনি। গুলশান ও শোলাকিয়ায় হামলা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমাদের আশঙ্কা ছিল দেশে এমন ঘটনা আনসারুল্লাহ বা জেএমবি ঘটাবে। কিন্তু ঘটনা ঘটিয়েছে ছাত্ররা। যা বাংলাদেশে আগে কখনও ঘটেনি। ধনীর দুলালরা অস্ত্র হাতে তুলে নিচ্ছে। কি কারণে তারা এমন বর্বরতা চালালো তা অনুধাবনের চেষ্টা করতে হবে। প্রতি বছর লাখ লাখ শিক্ষার্থী ডিগ্রী নিয়ে বের হচ্ছে, কিন্তু কর্মসংস্থান নেই। এ বেকার যুবকরা দেশ ও সমাজের বোঝা হয়ে যাচ্ছে। যার কারণে ধীরে ধীরে বিপথে ধাবিত হয়ে এখন তারা ‘টাইমবোমা’য় পরিণত হচ্ছে।